৭ ঘণ্টা বৈঠক করেও সিদ্ধান্ত নিতে পারেনি কুয়েট ছাত্র শৃঙ্খলা কমিটি

৭ ঘণ্টা বৈঠক করেও সিদ্ধান্ত নিতে পারেনি কুয়েট ছাত্র শৃঙ্খলা কমিটি

ফাইল ছবি।

খুলনা ব্যুরো:
সাত ঘণ্টা রুদ্ধদ্বার বৈঠক করেও শিক্ষক সেলিম হোসেনের অস্বাভাবিক মৃত্যুর ঘটনায় শোকজ করা ৪৪ ছাত্রের বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত পৌঁছাতে পারেনি খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র শৃঙ্খলা কমিটি।
মঙ্গলবার (৪ জানুয়ারি) সকাল ১০ টায় শুরু হওয়া সভা সিদ্ধান্ত ছাড়াই আগামীকাল বুধবার সকাল পর্যন্ত মুলতবী করা হয়েছে। ছাত্র শৃঙ্খলা কমিটির সদস্য সচিব অধ্যাপক ইসমাইল সাইফুল্লাহ বিকাল সাড়ে পাঁচটায় সাংবাদিকদের একথা জানান।
অধ্যাপক ইসমাইল সাইফুল্লাহ জানান, শোকজ পাওয়া ৪৪ ছাত্রের জবাব পর্যালোচনা, জবাব সন্তোসজনক না হলে কি ধরণের শাস্তি হতে পারে, সে বিষয়ে শৃঙ্খলা কমিটির ১১ সদস্য চূড়ান্ত সিদ্ধান্তে পৌঁছাতে না পারার কারণে সভা মুলতবী করা হয়েছে।
সাইফুল্লাহ ইসমাইল আরও জানান, ৪৪ ছাত্রের অভিযোগ প্রমাণিত হলে যে কারোরই সর্বোচ্চ শাস্তি স্থায়ী ও সাময়িক বহিষ্কার হতে পারে। অভিযোগ প্রমাণিত না হলে তাকে দায় থেকে অব্যাহতি দেয়া হতে পারে।আগামীকালের শৃঙ্খলা কমিটির সভা শেষে সভার সিদ্ধান্ত বেলা ১১ টায় অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া সিন্ডিকেট সভায় উত্থাপন করা হবে।
শিক্ষক সেলিম হোসেনের অস্বাভাবিক মৃত্যুর ঘটনায় গঠিত পাঁচ সদস্যের তদন্ত কমিটি গত ৩০ ডিসেম্বর ৪৪ ছাত্রকে শোকজ করে। গত ৩ জানুয়ারির মধ্যে ৪৪ ছাত্র শোকজের জবাব দেয়।
প্রসঙ্গত, গত ৩০ নভেম্বর ছাত্রলীগ কুয়েট শাখার সাধারণ সম্পাদক সাদমান নাহিয়ান সেজানের নেতৃত্বে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা শিক্ষক সেলিম হোসেনের কক্ষে প্রবেশ করেন। সেখানে লালন শাহ হলের ডাইনিং এর ম্যানেজার নিযুক্ত করাকে কেন্দ্র মানসিকভাবে সেলিম হোসেনকে হেনস্তা করেন। এ ঘটনার পর তিনি অসুস্থ হয়ে পড়লে হাসপাতালে নেয়ার পথে শিক্ষক সেলিম হোসেন মারা যান।
আরও পড়ুন- প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে মাকে কুপিয়ে হত্যা
এনবি/

সুত্রঃ যমুনা টিভি

  • শেয়ার করুন
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com