হৃতিকের আইনি পদক্ষেপে খেপলেন কঙ্গনা

হৃতিকের আইনি পদক্ষেপে খেপলেন কঙ্গনা

একতরফা হৃতিক রোশনের বিরুদ্ধে বছরের পর বছর বিষোদ্‌গার করে গেছেন কঙ্গনা রনৌত। কিন্তু আইন-আদালতের বাইরে গিয়ে কোনো মন্তব্য করতে নারাজ ‘কৃষ’ তারকা। খবর আনন্দবাজার পত্রিকা। ২০১৬ সালের একটি অভিযোগের বিষয়ে পদক্ষেপ নিতে মুম্বাইয়ের পুলিশ কমিশনারকে আরজি জানালেন হৃতিক। সোমবার সাইবার সেল থেকে ক্রাইম ইন্টেলিজেন্স ইউনিটের হাতে আসে হৃতিকের সেই এফআইআর। নতুন করে শুরু হবে তদন্ত। সমন পাঠানো হতে পারে কঙ্গনাকেও। আর এতেই খেপলেন ‘কুইন’ তারকা। বলা হয়ে থাকে, ‘কৃষ থ্রি’ ছবির সূত্রে তারা দুজন অল্প সময়ের জন্য প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়েছিলেন। কিন্তু তার পরিণতি কুৎসিত জায়গায় গিয়ে পৌঁছে। ২০১৬ সালে এক অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তির বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছিলেন হৃতিক। অভিযোগ ছিল, তার নাম দিয়ে ভুয়া ই-মেইল আইডি খুলে কঙ্গনাকে বার্তা পাঠানো হয়েছে ২০১৩-১৪ সালে। কিন্তু সে বিষয়ে কোনো পদক্ষেপ করা হয়নি। এছাড়া ২০১৭ সালে আরেকটি অভিযোগ দায়ের করেন হৃতিক। সেটি সরাসরি কঙ্গনার বিরুদ্ধে। সেই রিপোর্টে লেখা ছিল, কঙ্গনা তাকে হেনস্তা করছেন। এমনকি, অনুসরণও করছেন। সেই সময় মুম্বাই পুলিশের সাইবার সেল কঙ্গনাকে সমন পাঠিয়েছিল। সেই সমনকে ‘বেআইনি’ বলে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে এড়িয়ে যান তিনি। চার বছর পর প্রথম মামলাটি ত্বরান্বিত করার জন্য মুম্বাই পুলিশ কমিশনারের সঙ্গে কথা বললেন হৃতিক। যেন আগুনে ঘি ঢাললেন তিনি। নতুন অস্বস্তির মুখে কঙ্গনা। কিন্তু থেমে নেই তার বাক্যবাণ। হৃতিককে কটাক্ষ করে কঙ্গনা টুইটারে লেখেন, এতো বছরেও আমাকে ভুলতে পারল না সে। কোনো নারীর সঙ্গে প্রেমও করল না। ঠিক যখন আমি ব্যক্তিগত জীবনে কিছু আশার আলো দেখতে পাচ্ছিলাম, অমনি সেই পুরোনো নাটক শুরু করল। এর পর সরাসরি প্রশ্ন, কতদিন ধরে কাঁদবে একটা স্বল্পকালীন সম্পর্কের জন্য? His sob story starts again, so many years since our break up and his divorce but he refuses to move on, refuses to date any woman, just when I gather courage to find some hope in my personal life he starts the same drama again, @iHrithik kab tak royega ek chote se affair keliye? https://t.co/qh6pYkpsIP — Kangana Ranaut (@KanganaTeam) December 14, 2020 তবে এ টুইটের কোনো উত্তর দেননি হৃতিক রোশন।

সুত্রঃ যমুনা টিভি

  • শেয়ার করুন
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com