‘সুন্দরবনের আগুন নিভে গেছে, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে’

‘সুন্দরবনের আগুন নিভে গেছে, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে’

গত সোমবার (৩ মে) দুপুরে বাগেরহাটের পূর্বে সুন্দরবনের দাশের ভারনী টহল ফাঁড়ির কাছে ২ নম্বর কম্পার্টমেন্টের বনে আগুন লাগে।
 আগুন নিয়ন্ত্রণে এসেছে কিনা জানতে চাইলে ফায়ার সার্ভিসের উপপরিচালক মো. সরোয়ার হোসেন যমুনা নিউজকে বলেছেন, আগুন নিভে গেছে। বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে। কোথাও ধোঁয়া আছে কিনা তা খুঁজে দেখতে আমরা তিনটি ইউনিট পাঠিয়েছিলাম। তারা জানিয়েছে, কোথাও ধোঁয়া তারা দেখতে পায়নি। তবে সকালে আমরা আরও দুটি ইউনিটকে ঘটনাস্থল পর্যবেক্ষণের জন্য পাঠানোর পরিকল্পনা করেছি।
আগুন নেভাতে বিলম্ব হবার কারণ জানতে চাইলে তিনি বলেন, আগুনের অবস্থান লোকালয় থেকে  দূরে হওয়ায় সেখানে ফায়ার সার্ভিসের পৌঁছাতে বেগ পেতে হয়েছে। এ কারণেই সময় লেগে যায়। 
পূর্ব সুন্দরবন বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মো. বেলায়েত হোসেন আগুন লাগার কারণ হিসেবে যমুনা নিউজকে বলেন, মৌয়ালদের ব্যবহৃত আগুন থেকে আগুনের সূত্রপাত হতে পারে। অথবা জেলেদের ব্যবহৃত আগুন থেকেও লেগে থাকতে পারে। তবে তদন্ত কমিটির রিপোর্ট পাওয়ার আগ পর্যন্ত নিশ্চিত করে কিছুই বলা যাবে না বলে জানান তিনি।
ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ কেমন হতে পারে জানতে চাইলে তিনি এ নিয়ে নিশ্চিত করে কিছু বলেননি। তবে তিনি প্রাথমিকভাবে ধারণা করছেন এক থেকে দুই একর জায়গা আগুনে পুড়ে গিয়ে থাকতে পারে। তবে এই অঞ্চলে মূল্যবান বিরল প্রজাতির কোনো গাছপালা ছিলো না বলেও তিনি জানান। এই জায়গাটা মূলত গুল্মলতা এবং সাধারণ ঝোপঝাড়বেষ্টিত এলাকা।তদন্ত কমিটির আহ্বায়ক শরণখোলা রেঞ্জের সহকারী বন সংরক্ষক মো. জয়নাল আবেদীন বলেন, তারা তদন্ত শুরু করেছেন। খুব দ্রুতই তারা আগুন লাগার কারণ এবং ক্ষয়ক্ষতির ব্যাপারে বিস্তারিত জানতে পারবেন।
উল্লেখ্য, আগুন লাগার ঘটনায় তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেছে বন বিভাগ। শরণখোলা রেঞ্জের সহকারী বন সংরক্ষক মো. জয়নাল আবেদীনকে প্রধান করে ধান সাগর স্টেশনের কর্মকর্তা মো. ফরিদুল ইসলাম ও শরণখোলা স্টেশনের কর্মকর্তা মো. আব্দুল মান্নাকে সদস্য করে কমিটি গঠন করা হয়েছে। এই কমিটি আগামী ৭ কার্য দিবসের মধ্যে প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে।

সুত্রঃ যমুনা টিভি

  • শেয়ার করুন
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com