সরাইলে কৃষি কর্মকর্তার বিরুদ্ধে বিএনপি’র এজেন্ডা বাস্তবায়নের অভিযোগ

সরাইলে কৃষি কর্মকর্তার বিরুদ্ধে বিএনপি’র এজেন্ডা বাস্তবায়নের অভিযোগ

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি:
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মর্জিনা বেগম বিএনপি’র এজেন্ডা বাস্তবায়নে কাজ করছেন। তিনি নিজেই বিএনপি রাজনীতি সমর্থন করেন বলে অভিযোগ উঠেছে।
রোববার দুপুরে গণমাধ্যম কর্মীদের কাছে জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত আসন ৩১২ মহিলা আসনের সংসদ সদস্য ও সরাইল উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রথম যুগ্ম আহবায়ক উম্মে ফাতেমা নাজমা বেগম ওরফে শিউলি আজাদ সরাইল কৃষি কর্মকর্তা মর্জিনা বেগমেরবিরুদ্ধে এসব অভিযোগ আনেন।
এই সময় আ’লীগের দলীয় এই নারী সাংসদ আরও বলেন, ৮ এপ্রিল ৭০ শতাংশের ভর্তুকিতে সরাইল উপজেলার ১০ জন কৃষকের মাঝে কম্বাইন্ড হারভেস্টার মেশিন বিতরণ করে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা। সেই মেশিন বিতরণে ব্যাপক অনিয়ম ও দুর্নীতির আশ্রয় নেন কৃষি কর্মকর্তা মর্জিনা বেগম। প্রকৃত কৃষকের নাম ব্যবহার করে এই কর্মকর্তা স্থানীয় বিএনপি রাজনীতির সঙ্গে জড়িত লোকদের হাতে এই মেশিনগুলো তুলে দিয়েছেন।
তিনি অভিযোগ করেন, সরাইলে স্থানীয় বিএনপির লোকদের সুবিধা দিয়ে যাচ্ছেন মর্জিনা বেগম। এই দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তাকে সহযোগিতা করে যাচ্ছে স্থানীয় কিছু নামধারী আ’লীগ নেতা। এই নামধারী নেতারা বহু আগেই তারা আ’লীগ থেকে বহিষ্কৃত।
বিতরণ অনুষ্ঠানে নিয়ম থাকলেও আ’লীগের এমপিকে দাওয়াত করেননি তিনি। এমনকি এই এলাকায় দায়িত্বপ্রাপ্ত আ’লীগের এমপি হিসেবে এসব মেশিন প্রকৃত কৃষকদের মধ্যে বণ্টনে কোনো পরামর্শ নেননি এই কৃষি কর্মকর্তা। ফলে তিনি সরাইলে বিএনপি এজেন্ডা বাস্তবায়নে কাজ করছেন উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মর্জিনা বেগম।
এই ব্যাপারে জানতে চাইলে সরাইল উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) কৃষিবিদ মর্জিনা বেগম বলেন, সকল নিয়মনীতি অনুসরণ করেই এখানে প্রকৃত সুফল ভোগীদের মাঝে ৮ এপ্রিল ১০টি কম্বাইন্ড হারভেস্টার মেশিন বিতরণ করেছি। তিনি আরও বলেন, সেদিন বিতরণ অনুষ্ঠানে উনাকে (নারী এমপি শিউলি আজাদ) দাওয়াত করা আমার উচিত ছিল। কিন্তু আমি উনাকে দাওয়াত করিনি। এটা আমার ভুল হয়েছে।
জানতে চাইলে সরাইল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আরিফুল হক মৃদুল বলেন, সবকিছু নীতিমালায় দেয়া থাকে না। এর বাইরেও কিছু করতে হয়। সেদিনের অনুষ্ঠানে এমপি শিউলি আজাদ মহোদয়কে দাওয়াত দেয়া উচিত ছিল। যেহেতু কৃষি অফিসার এখানে নতুন, তিনি বিষয়টি বুঝতে পারেননি। আমরা এমপি স্যারের সঙ্গে কথা বলেছি, ভবিষ্যতে এই ধরনের অনুষ্ঠানে উনাকে অবশ্যই দাওয়াত করবো আমরা।
ইউএনও আরও বলেন, এখনে বিএনপি-এজেন্ডা বাস্তবায়ন করছে কেউ, এমন বিষয় আমার জানা নেই। ইউএনও আরও বলেন, অনেকে তো অনেক কথাই বলে, কেউ যদি এমনঅভিযোগ লিখিত আকারে দেন, তাহলে বিষয়টি অবশ্যই আমরা খতিয়ে দেখবো।
উল্লেখ্য, গত ৮ এপ্রিল সরাইল উপজেলার শাহজাদাপুর ইউনিয়নে ৪টি, নোয়াগাঁও ইউনিয়নে ৪টি ও কালিকচ্ছ ইউনিয়নে ২টি কম্বাইন্ড হারভেস্টার মেশিন দেয়া হয়।

সুত্রঃ যমুনা টিভি

  • শেয়ার করুন

সর্বশেষ খবর

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com