লঞ্চে আগুন: ঝালকাঠির সিভিল সার্জনকে ওএসডি করা হলো

লঞ্চে আগুন: ঝালকাঠির সিভিল সার্জনকে ওএসডি করা হলো

ওএসডি করা হহ্যেছে ঝালকাঠির সিভিল সার্জন ডা. রতন কুমার ঢালীকে।

বিষখালী নদীতে বরগুনাগামী এমভি অভিযান-১০ যাত্রীবাহী লঞ্চে আগুন লেগে হতাহতের ঘটনায় দায়িত্ব ও কর্তব্যে অবহেলার অভিযোগে ঝালকাঠির সিভিল সার্জন ডা. রতন কুমার ঢালীকে ওএসডি করা হয়েছে।
রোববার (২ জানুয়ারি) স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের উপসচিব জাকারিয়া পারভীন ওএসডির আদেশ প্রদান করেন। এ সংক্রান্ত আদেশ ঝালকাঠিতে সিভিল সার্জন কার্যালয়ে আসে বলে জানিয়েছেন সিভিল সার্জন কার্যালয়ের জুনিয়র স্বাস্থ্য-শিক্ষা কর্মকর্তা গৌতম কুমার দাস।তিনি জানান, ৫ ডিসেম্বর স্বাস্থ্য অধিদফতরে যোগদান করবেন বলে ২ ডিসেম্বর ঝালকাঠি ত্যাগ করেন সিভিল সার্জন ডা. রতন কুমার ঢালী। এদিক সিভিল সার্জন ওএসডির হওয়ার কথা এড়িয়ে যান ডা. রতন কুমার ঢালী। ঘটনার দিন তিনি কোথায় ছিলেন সে প্রশ্নের জবাবও তিনি দেননি।ঝালকাঠি স্বাস্থ্য বিভাগের একটি সূত্র জানিয়েছে, বরিশাল বিভাগীয় কমিশনার সাইফুল হাসান (বাদল) ঝালকাঠি সিভিল সার্জনকে লঞ্চে অগ্নিকাণ্ডের পর তলব করেও পাননি। গত ২৩ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৩টা থেকে পরদিন শুক্রবার সকাল ৭টা পর্যন্ত লঞ্চে দগ্ধ ৭০ জন যাত্রীকে ঝালকাঠি সদর হাসপাতালে নেয়া হয়। ঝালকাঠিতে বার্ন ইউনিট না থাকায় সদর হাসপাতালে ১৫ জন রেখে অন্যদের বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়ে দেয়া হয়।
ঝালকাঠি সিভিল সার্জন কার্যালয়ের ইপিআই সুপারিনটেনডেন্ট জি কে মতিউর রহমান সিকদার জানান, লঞ্চে অগ্নিকাণ্ডের সময় সিভিল সার্জন ডা. রতন কুমার ঢালী ঝালকাঠিতে ছিলেন না। তিনি তার স্ত্রীর কর্মস্থল পিরোজপুরে অবস্থান করছিলেন। ঝালকাঠি সিভিল সার্জন কার্যালয়ের একটি সুত্র জানায়, পিরোজপুরে তার অবস্থানের সময় তিনি ছুটি নেননি। এ ব্যাপারে সিভিল সার্জন ডা. রতন কুমার ঢালী বলেন, আমাকে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের যোগদানের চিঠি এসেছে। আমি নির্দেশনা অনুযায়ী যোগদান করব। এর বাইরে আপাতত কিছু আমার জানা নেই।/এসএইচ

সুত্রঃ যমুনা টিভি

  • শেয়ার করুন
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com