যৌন নিপীড়নের অভিযোগ করেও মেলেনি বিচার, শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা

যৌন নিপীড়নের অভিযোগ করেও মেলেনি বিচার, শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা

ছবি: সংগৃহীত।

যৌন নিপীড়নের অভিযোগের বিচার না পেয়ে কিশোরগঞ্জে আত্মহননের পথ বেছে নিয়েছে এক স্কুলছাত্রী। অভিযোগ আছে, স্কুলের সীমানা প্রাচীরের পাশে স্কুলছাত্রী শান্তাকে নির্যাতন করে তিন যুবক। ভিডিও ধারণের পর সেটি ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয়ার হুমকিও দেয় তারা। বিষয়টি স্কুল কর্তৃপক্ষকে জানিয়েও কোনো ফল মেলেনি। তাই সেদিন সন্ধ্যায়ই আত্মহত্যা করে সে। ঘটনা জানাজানি হওয়ার পর বিচারের দাবিতে আন্দোলন করছে স্থানীয়রা।
বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, ২৫ ডিসেম্বর নবম শ্রেণির ভর্তি ফরম আনতে কিশোরগঞ্জ কটিয়াদীর আনন্দ কিশোর স্কুলে যায় শান্তা। স্কুল প্রাঙ্গন থেকেই মেয়েটিকে তুলে নিয়ে যায় তিন বখাটে আকাশ, আরমান ও ইমন। যৌন নিপিড়নের ভিডিও মোবাইল ফোনে ধারণ করে তারা। মুখ বন্ধ রাখতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়ার হুমকি দেয় বখাটে তিন যুবক। বিষয়টি স্কুল কর্তৃপক্ষকে জানিয়ে, ঐ সন্ধ্যায় আত্মহত্যা করে মেয়েটি।
ঘটনাটি জানাজানির পর ফুঁসে উঠেছে সহপাঠি ও এলাকাবাসী। জড়িতদের সর্বোচ্চ শাস্তি চায় তারা। শান্তার মায়ের অভিযোগ, নির্যাতনের বিষয়টি জানার পরও পদক্ষেপ নেয়নি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের কর্তৃপক্ষ। দ্রুত ব্যবস্থা নেয়া হলে হয়তো বেঁচে থাকতো তার সন্তান।
এরই মধ্যে তিন জনকে আসামি করে আত্মহত্যার প্ররোচনায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেছেন নিহতের মা শাহানা আক্তার। এ নিয়ে কিশোরগঞ্জ সিভিল সার্জন মুজিবুর রহমান জানিয়েছেন, এরইমধ্যে শান্তার ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। আসামিদের ধরতে চলছে পুলিশি অভিযান।

সুত্রঃ যমুনা টিভি

  • শেয়ার করুন
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com