মালয়েশিয়ায় রিক্যালিব্রেসি প্রক্রিয়ায় বৈধ হতে সহযোগিতা করবে হাইকমিশন

মালয়েশিয়ায় রিক্যালিব্রেসি প্রক্রিয়ায় বৈধ হতে সহযোগিতা করবে হাইকমিশন

আহমাদুল কবির, মালয়েশিয়া:
মালয়েশিয়া সরকারের বেধে দেয়া রিক্যালিব্রেসি প্রক্রিয়ায় অবৈধদের বৈধ হতে সহযোগিতা করবে বাংলাদেশ হাই কমিশন। এমনটি জানিয়েছেন দেশটিতে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাই কমিশনার মো. গোলাম সারওয়ার।
এর আগে গত বৃহস্পতিবার (৮ এপ্রিল) মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশ হাইকমিশন দেশটিতে থাকা প্রবাসীদের কর্মসংস্থানের জন্য ‘চাকরির খোঁজ’ নামে একটি ওয়েবসাইট চালু করছে। এক ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানের মাধ্যমে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ, পররাষ্ট্রমন্ত্রী শহরিয়ার আলম ও মালয়েশিয়ায় নিযুক্ত রাষ্ট্রদূত মো. গোলাম সারওয়ার এই ওয়েবসাইটের উদ্বোধন করেন।
উদ্বোধনের ভার্চুয়ালি অনুষ্ঠানে যুক্ত ছিলেন, মালয়েশিয়ার শ্রম বিভাগের ডেপুটি ডিরেক্টর জেনারেল মোহাম্মদ আজরি আব্দুল ওয়াহাব, প্রবাসী কল্যাণ সচিব ড. আহমেদ মনিরুস সালেহিন ও টেকনোলজি পার্টনার ডটলাইনের প্রেসিডেন্ট মাহবুবুল মতিন। অনুষ্ঠানটি বাংলাদেশ হাইকমিশনের ফেসবুক পেজের মাধ্যমে সরাসরি সম্প্রচার করা হয়।
‘চাকরির খোঁজ’ নামে ওয়েবসাইট উদ্বোধনের পর প্রবাসীদের মাঝে ব্যাপক সাড়া জাগে এবং প্রতিদিন হাইকমিশনে যোগাযোগ করতে থাকেন প্রবাসীরা। এরই মাঝে বৃহস্পতিবার (১৫ এপ্রিল) মালয়েশিয়ার মানবসম্পদ মন্ত্রী দাতুক সেরি এম সারাভানান বাংলাদেশ হাইকমিশনের চাকরির খোঁজ পোর্টালটি চালু করায় হাইকমিশন দায়িত্বহীনতার পরিচয় দিয়েছে বলে এমন মন্তব্য ছুড়েছেন। মানব সম্পদ মন্ত্রীর বরাত দিয়ে দেশটির শীর্ষস্থানীয় দৈনিক ফ্রি-মালয়েশিয়া টুডে ও স্টার পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশ করে। বৃহস্পতিবার প্রকাশিত সংবাদে বলা হয়, জব পোর্টাল চালু’র বিষয়ে হাইকমিশনের সমালোচনা করা হয়।
দেশটির মানব সম্পদমন্ত্রী এম সারাভানান বলেন, বাংলাদেশ হাইকমিশন এ বিষয়ে মানব সম্পদ মন্ত্রণালয়কে অবহিত করেনি। তারা দায়িত্বহীনতার পরিচয় দিয়েছে। বাংলাদেশ হাইকমিশনের এ কার্যক্রমে মালয়েশিয়ায় ৪ শতাধিক বৈধ এজেন্সি ক্ষতিগ্রস্ত হবে বলেও মন্তব্য করেন মন্ত্রী।
জবাবে হাই কমিশনার শুক্রবার একটি বিবৃতি প্রদান করেছেন। বিবৃতিতে হাইকমিশনার বলেন, মালয়েশিয়া সরকার রিক্যালিব্রেসি নামে অবৈধ বিদেশি কর্মীদের বৈধ হতে একটি সুযোগ দিয়েছেন। এ সুযোগ চলবে জুন পর্যন্ত। আর এ রিক্যালিব্রেসি প্রক্রিয়া সফল করতে ইমিগ্রেশন ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে একাধিক বৈঠক ও করেছে হাইকমিশন। চলমান প্রক্রিয়াটি সফল করতে সহযোগিতাও চাওয়া হয় দেশটির পক্ষে। এ কারণেই জব পোর্টালটি বাংলাদেশ হাইকমিশন তাদের দায়িত্ববোধ থেকে মালয়েশিয়ায় কর্মরত বাংলাদেশিদের কল্যাণে চালু করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন হাইকমিশনার গোলাম সারওয়ার।
তিনি বলেন, অনেক মালয়েশিয়ান কোম্পানির মালিক রিক্যালিব্রেশন প্রক্রিয়ায় বৈধতার জন্য কাগজপত্রবিহীন বাংলাদেশিদের খুঁজে একত্রিত করার একটি উপযুক্ত পদ্ধতি চালুর অনুরোধ জানায় হাইকমিশনকে। পোর্টালের মাধ্যমে তৃতীয় পক্ষ ছাড়া মালিক-শ্রমিকের সমন্বয়ক হিসেবে কাজ করবে বলেও জানান তিনি।
এ ছাড়া মালয়েশিয়ার মানবসম্পদ মন্ত্রণালয়ের নিয়ম মেনে বাংলাদেশ থেকে নতুন করে শ্রমিক আনার ব্যাপারে খুব শিগগিরই একটি ফলাফল আসবে বলে আশা ব্যক্ত করেছেন হাইকমিশনার।
ইউএইচ/

সুত্রঃ যমুনা টিভি

  • শেয়ার করুন
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com