মামুনুল-ফয়জুলের বয়ানে উদ্বুদ্ধ হয়ে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাঙচুর করে অভিযুক্তরা: পুলিশ

মামুনুল-ফয়জুলের বয়ানে উদ্বুদ্ধ হয়ে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাঙচুর করে অভিযুক্তরা: পুলিশ

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি: কুষ্টিয়া শহরের পাঁচ রাস্তার মোড়ে নির্মাণাধীন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য ভাঙচুরের ঘটনায় জড়িত দুই মাদ্রাসাছাত্র ও মাদ্রাসার দুই শিক্ষককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তাদের গ্রেফতারের পর পুলিশ জানায়, হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হক ও ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের জ্যেষ্ঠ নায়েবে আমির সৈয়দ মুহাম্মদ ফয়জুল করীমের বিভিন্ন সময়ে দেওয়া বয়ানে তারা উদ্বুদ্ধ হয়ে ভাস্কর্য ভাঙচুর করেছেন। রোববার বিকেলে কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান খুলনা রেঞ্জের ডিআইজি ড. খন্দকার মুহিদ উদ্দীন। এ ঘটনায় আটককৃতরা হলেন কুষ্টিয়া শহরতলীর জুগিয়া পশ্চিমপাড়া এলাকার ইবনি মাসউদ (রা.) মাদ্রাসার শিক্ষক মোঃ আল আমিন (২৭) ও ইউসুফ আলী (২৬) এবং একই মাদ্রাসার হেফজখানার ছাত্র আবু বক্কর ওরফে মিঠুন (১৯) ও মো. সবুজ ইসলাম ওরফে নাহিদ (২০)। ডিআইজি জানান, এ ঘটনায় কুষ্টিয়া পৌরসভার সচিব কামাল উদ্দীন বাদী হয়ে কুষ্টিয়া মডেল থানায় ১৯৭৪ সালের বিশেষ ক্ষমতা আইনে একটি মামলা দায়ের করেন। সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, মিঠুন ও নাহিদ গত শুক্রবার মধ্য রাতে কুষ্টিয়া শহরের পাঁচ রাস্তার মোড়ে নির্মাণাধীন জাতির পিতার ভাস্কর্য ভাঙচুর করে। এসময় মাদ্রাসার নির্মাণের কাজে কর্মরত রাজমিস্ত্রির হাতুড়ি ব্যাগে করে সাথে নিয়ে আসে। দু’জন মিলে ভাস্কর্য ভাঙচুর শেষে পুনরায় হেঁটে মাদ্রাসায় ফিরে যান। পরদিন শনিবার সকালে ভাস্কর্য ভাঙচুরের বিষয়টি তারা মাদ্রাসার শিক্ষক আল আমিন ও ইউসুফকে জানান। দুই শিক্ষকই তাদের পালিয়ে যেতে বলেন। দুই ছাত্র পরে বাড়িতে চলে যান। পুলিশ অভিযান চালিয়ে তাদের নিজ নিজ বাড়ি থেকে গ্রেফতার করে।

সুত্রঃ যমুনা টিভি

  • শেয়ার করুন

সর্বশেষ খবর

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com