‘ভারতে বিদ্বেষের রাজনীতির কেন্দ্র-উত্তর প্রদেশ’ মন্তব্য দেশটির সাবেক আমলাদের

‘ভারতে বিদ্বেষের রাজনীতির কেন্দ্র-উত্তর প্রদেশ’ মন্তব্য দেশটির সাবেক আমলাদের

ভারতে বিদ্বেষের রাজনীতির কেন্দ্র- উত্তর প্রদেশ। খোলা চিঠিতে এ অভিযোগ শতাধিক সাবেক ঊর্ধ্বতন সরকারি কর্মকর্তার। যোগি আদিত্যনাথকে দায়ী করে তারা বলেন, মুখ্যমন্ত্রীর মতো দায়িত্বশীল পদে থাকতে যথেষ্ট শিক্ষিত হওয়া প্রয়োজন। চিঠিটিতে স্বাক্ষর করেছেন, ভারতের সাবেক জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা শিবশঙ্কর মেনন, সাবেক পররাষ্ট্র সচিব নিরুপমা রাওসহ ১০৪ জন সাবেক আইএএস কর্মকর্তা। বলেছেন, ধর্মান্তর ঠেকানোর আইন কার্যকরের মাধ্যমে গোঁড়ামি এবং বিভাজন-সাম্প্রদায়িকতাকে বৈধতা দেয়া হয়েছে। জীবনসঙ্গী পছন্দ করা একান্ত ব্যক্তিগত বিষয়- আদালতের ঘোষিত এ রায়কেও উপেক্ষা করেছে আদিত্যনাথ প্রশাসন। দাবি তুলেছেন, আইনটি অবিলম্বে বাতিলের। প্রেমের ফাঁদে ফেলে হিন্দু নারীদের কৌশলে ইসলাম ধর্ম গ্রহণে বাধ্য করছেন মুসলিম পুরুষরা- এমন অভিযোগ ভারতের কট্টরপন্থিদের। লোকসভা সদস্য এবং এআইএমআইএম প্রধান আসাদউদ্দিন ওয়াইসি বলেন, “ব্যক্তিস্বাধীনতা নিয়ে সর্বোচ্চ আদালতের নির্দেশনাকে বুড়ো আঙুল তো দেখানো হয়েছেই; বিজেপি নিয়ন্ত্রিত রাজ্যগুলোতে এসব আইন-অধ্যাদেশ ভারতীয় সংবিধানের একাধিক অনুচ্ছেদের স্পষ্ট লঙ্ঘনও। কোনো প্রাপ্তবয়স্ক ব্যক্তি কার সাথে জীবন কাটাবেন, সেটা সম্পূর্ণ তার নিজের সিদ্ধান্ত। এতে রাষ্ট্রের নাক গলানোর কোনো উপায় নেই।”

সুত্রঃ যমুনা টিভি

  • শেয়ার করুন
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com