ভারতে নতুন মরণ ব্যাধির উদ্ভব !

ভারতে নতুন মরণ ব্যাধির উদ্ভব !

ছবি: সংগৃহীত

করোনার দাপট তো চলছেই। সেই সাথে ভারতে প্রথম শনাক্ত করোনার ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট এখন বিশ্বে সবচেয়ে আতঙ্কের নাম। তবে দেশটিতে এখন নতুন এক রোগের প্রাদুর্ভাব ঘটেছে, নাম লেপটোস্পাইরোসিস।
বর্ষার মৌসুমে রাস্তায় হাঁটু সমান পানি ঢাকা শহরের খুবই স্বাভাবিক একটি চিত্র। এই পানিতেই মিশে থাকা কুকুর বা ইঁদুরের মুত্র থেকে মানবশরীরে জন্ম নিচ্ছে নতুন এই প্রাণঘাতী রোগ লেপটোস্পাইরোসিস।
ভারতের বেশ কিছু স্থানে এখন এই রোগের লক্ষণ প্রকাশ পাচ্ছে। এরই মধ্যে পশ্চিমবঙ্গের স্বাস্থ্য অধিদফতর থেকে সতর্কতা জারি করা হয়েছে। লেপটোস্পাইরোসিনের মূল লক্ষণগুলো হলো, অসাড় হয়ে আসা পায়ের পেশি, চোখ টকটকে লাল হয়ে যাওয়া এবং ঘাড় শক্ত হয়ে ফ্রিজ হয়ে যাওয়া।
পশ্চিমবঙ্গ স্বাস্থ্য অধিদফতরের জারি করা নির্দেশনা এরই মধ্যে প্রতিটি জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য কর্মকর্তা এবং প্রতিটি মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষের কাছে পৌঁছে গেছে। বলা হচ্ছে, এই অসুখে মৃত্যুর হার ব্যাপক। তাই সামান্য লক্ষণ দেখা দিলেই সাথে সাথে চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।
তবে কীভাবে ছড়ায় এই রোগ? ভারতের ডাইরেক্টর অব হেলথ সার্ভিস এবং ডাইরেক্টর অব মেডিকেল এডুকেশন বলছে, কুকুর-ইঁদুর কিংবা গবাদি পশুর শরীরে এক প্রকার স্পাইরাল ব্যাকটেরিয়া থাকে। চিকিৎসা বিজ্ঞানে এর নাম লেপটোস্পাইরা। নতুন এই রোগের কারণ এই ব্যাকটেরিয়াই।
আক্রান্ত পশুর প্রস্রাবে বিশাল সংখ্যায় থাকে সেই ব্যাকটেরিয়া, যা শরীরে লাগলেই বাসা বাঁধে এই মারণ রোগ। পশুর প্রস্রাব ত্বকের সংস্পর্শে এলেই অসুখ ছড়ায়। ইঁদুর প্রস্রাব করে যেখানে সেখানে। তাই এ নিয়ে সবসময় সতর্ক থাকতে হবে।
বিশেষ করে বর্ষাকালে বিপদ বেশি। কারণ বর্ষা বা বর্ষা পরবর্তী স্যাঁতস্যাঁতে আবহাওয়া এই অসুখ ছড়ানোর পক্ষে অনুকূল। তাছাড়া এ সময় যেখানে সেখানে জমে থাকা পানির সাথে প্রস্রাব মিশে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে সবচেয়ে বেশি।
আক্রান্ত হওয়ার পর লক্ষণ দেখা দেয় মাত্র ৫-১৪ দিনের মধ্যেই। রুটিন ইউরিন পরীক্ষা, রক্তের টিএলসি, ডিএলসি, ইএসআর, প্লেটলেট কাউন্ট করলেই ধরা পরে অসুখ। এ অসুখে মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্ত হয় যকৃৎ। লিভার ফাংশন টেস্ট করালেও বোঝা যাবে শরীরে ব্যাকটেরিয়া প্রবেশ করেছে কি-না।
তাই শিশুদের শখ করে জমে থাকা পানিতে ঝাঁপাঝাপি বা রাস্তায় জমা পানিতে পা ডুবিয়ে এগিয়ে যাওয়ার অভ্যাসে হতে পারে মারাত্মক বিপদ। পাশাপাশি, বাড়ির আশপাশের নালা বা রাস্তাঘাট পরিষ্কার রাখলেও এ থেকে নিস্তার পাওয়া সম্ভব।

সুত্রঃ যমুনা টিভি

  • শেয়ার করুন
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com