ভারতের নতুন সংসদ ভবনের ভূমিপূজা করলেন মোদি

ভারতের নতুন সংসদ ভবনের ভূমিপূজা করলেন মোদি

নতুন পার্লামেন্ট ভবন হচ্ছে ভারতে। বৃহস্পতিবার ভূমিপূজা শেষে যার ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। মাত্র দুই বছরেই আধুনিক এ ভবনের নির্মাণকাজ শেষ করতে চায় ভারত সরকার। ২০২২ সালে ভারতের স্বাধীনতার ৭৫-তম বর্ষপূর্তিতে এখানে অধিবেশন করার পরিকল্পনা তাদের। নতুন পার্লামেন্ট ভবনের অধিবেশনে একসাথে ১ হাজার ২২৪ জন যোগ দিতে পারবেন । দিল্লিগেট এলাকায় আগের পার্লামেন্ট ভবনের পাশেই তৈরি হবে নতুন ভবন। বুধবার সকালে যার ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনে গিয়ে নিজে ভূমিপূজায় বসেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। মহামারি পরিস্থিতিতেও জমকালো অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত ছিলেন দুইশ’র বেশি অতিথি। কেন্দ্রীয় মন্ত্রীদের সাথে ছিলেন নির্মাণের কার্যাদেশ পাওয়া টাটা গ্রুপের কর্ণধার রতন টাটা। নরেন্দ্র মোদির দাবি, আত্মনির্ভর ভারতের নতুন যাত্রার প্রতীক হবে নতুন পার্লামেন্ট ভবন। মোদি বলেন, পুরানো পার্লামেন্ট ভবন থেকে এসেছিল ভারত স্বাধীনের ডাক। নতুন পার্লামেন্ট ভবন হলো- আত্মনির্ভরশীল ভারতের প্রতীক। আজ দেশ ও জনগণের জন্য ঐতিহাসিক দিন। গণতন্ত্রের জন্য একটি মাইলফলক। সারা বিশ্বে ভারতীয়দের মতো আর কেউ গণতন্ত্রকে জীবনযাত্রার অংশ বানায়নি। সাড়ে ৬৪ হাজার বর্গমিটার আয়তন হবে ৪ তলা নতুন পার্লামেন্ট ভবনের। যাতে একসাথে অধিবেশনে অংশ নিতে পারবেন ১২শ’র বেশি এমপি। থাকবে আলাদা- সংবিধান হল, লাউঞ্জ, লাইব্রেরি। ভবনটি নির্মাণে খরচ ধরা হয়েছে ৯৭১ কোটি রুপি। ভারতের স্বাধীনতার প্লাটিনাম জুবিলি বা ৭৫ বছরপূর্তিতে ২০২২ সালে উদ্বোধন হবে নতুন ত্রিকোণ ভবনের। ব্রিটিশ আমলে ১৯২১ সালে নির্মিত পুরনো ভবনটি তখন থেকে ব্যবহৃত হবে সংসদীয় অন্যান্য কাজে। দুই ভবন মিলে অভিন্ন নাম হবে পার্লামেন্ট কমপ্লেক্স। অবশ্য, সুপ্রিমকোর্টে একটি শুনানি চলমান থাকায় এখনই শুরু হচ্ছে না নির্মাণকাজ। ভারতের লোকসভায় এখন সদস্যসংখ্যা ৫৪৩। ১৯৭১ সালের আদমশুমারি অনুসারে নির্ধারিত হয় এ সংখ্যা। তবে, নতুন করে জনসংখ্যা অনুপাতে ২০২৬ সালে এমপি’র সংখ্যা অনেক বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে ভারতে।

সুত্রঃ যমুনা টিভি

  • শেয়ার করুন

সর্বশেষ খবর

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com