‘বুস্টার ডোজের জন্য বাড়ছে টিকা বৈষম্য, দীর্ঘস্থায়ী হচ্ছে মহামারি’

‘বুস্টার ডোজের জন্য বাড়ছে টিকা বৈষম্য, দীর্ঘস্থায়ী হচ্ছে মহামারি’

ছবি: সংগৃহীত

বুস্টার ডোজের লক্ষ্য পূরণে ধনী দেশগুলোর অতিরিক্ত ভ্যাকসিন সংগ্রহের প্রবণতা প্রকট করছে টিকা বৈষম্য। এমন পদক্ষেপ আরও দীর্ঘস্থায়ী করছে মহামারি।
বুধবার (২২ ডিসেম্বর) সুইজার‌ল্যান্ডের রাজধানী জেনেভায় ডব্লিউএইচও কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এমন সতর্কবার্তা দিয়েছেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান তেদ্রোস আধানম।
তেদ্রোস আধানম বলেন, কোনো দেশই এককভাবে মহামারি থেকে নিজেদের সুরক্ষা নিশ্চিত করতে পারবে না। বিশ্বনেতাদের প্রতি গত ২ বছরের অভিজ্ঞতা থেকে শিক্ষা নেয়ার আহ্বান জানান তেদ্রোস। ২০২২ সালের প্রথমার্ধের মধ্যে বিশ্বের সব প্রাপ্তবয়স্ক জনগোষ্ঠীকে টিকার আওতায় আনা সম্ভব বলে আশাবাদ জানান ডব্লিউএইচও মহাপরিচালক।
এদিকে করোনাভাইরাসের নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রন প্রসঙ্গে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান নির্বাহী জানান, মহামারি শুরুর পর থেকে আফ্রিকায় করোনা সংক্রমণের হার সর্বনিম্ন ছিল। তবে করোনা ভাইরাসের সর্বোচ্চ সংক্রামক ধরন হিসেবে স্বীকৃতি পাওয়া ওমিক্রনের প্রভাবে প্রতিদিন আফ্রিকার দেশগুলোতে হু হু করে বাড়ছে এ রোগে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা। ২০২০ সালে মহামারি শুরু হওয়ার পর থেকে বিশ্বের যেসব অঞ্চলে সংক্রমণ সবচেয়ে কম হয়েছিল- সেগুলোর মধ্যে অন্যতম ছিল আফ্রিকা। কিন্তু ওমিক্রনের প্রভাবে সেই চিত্র বদলে গেছে। গত এক সপ্তাহে বিশ্বের যেসব অঞ্চলে করোনা সংক্রমণ সবচেয়ে বেশি হয়েছে, সেসবের মধ্যে বর্তমানে চতুর্থ স্থানে আছে আফ্রিকা।
তেদ্রোস আধানম আরও বলেন, আগামী বছরের শেষ নাগাদ মহামারির কবল থেকে মুক্ত হতে পারে বিশ্ব। বিশ্বজুড়ে টিকা বণ্টনে সমতা রক্ষা করা গেলেই এমনটা সম্ভব বলে মনে করেন তিনি।

সুত্রঃ যমুনা টিভি

  • শেয়ার করুন
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com