বাইউষ্ট কুমিল্লা আন্তর্জাতিক মানের এক অনন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান | Ekushey Bangla | একুশে বাংলা

বাইউষ্ট কুমিল্লা আন্তর্জাতিক মানের এক অনন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান

দীর্ঘ ৪ বছর পর কুমিল্লায় প্রতিষ্ঠিত বাংলাদেশ আর্মি ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স এন্ড টেকনোলজি (বাইউষ্ট) এর কার্যক্রমে সন্তোষ প্রকাশ করে রাষ্ট্রপ্রতি কর্তৃক বাইউষ্ট এর উপাচার্য পদে নিয়োগদানে বাইউষ্ট এর সকল স্তরের কর্মকর্তা কর্মচারী আনন্দিত উৎফুল্লিত। এতে বাইউষ্ট কুমিল্লার শিক্ষা কার্যμমে আরো একধাপ এগিয়ে গেল।
কুমিল্লার প্রাকৃতিক সৌন্দর্যমন্ডিত লালমাই পাহাড়ের উত্তরে ময়নামতি সেনানিবাসের একাংশে প্রতিষ্ঠিত বাংলাদেশ আর্মি ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স এন্ড টেকনোলজি (বাইউষ্ট) বর্তমান তথ্য প্রযুক্তিভিত্তিক জ্ঞান বিজ্ঞানের আধুনিকতম শিক্ষার এক অন্যতম উচ্চতর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান হিসাবে সর্বজন স্বীকৃত। সেনাবাহিনীর বোর্ড অব ট্রাষ্টির পরিচালিত দেশের বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে কুমিল্লা বাইউষ্ট অন্যতম।
প্রাচীন সভ্যতার ধারক বাহক শিক্ষা সংস্কৃতির পাদপীঠ পথিকৃত কুমিল্লার ঐতিহাসিক শালবন বিহারের অদূরেই ঢাকা চট্টগ্রাম মহাসড়কের পাশে শহর থেকে ৪ কিলোমিটার পশ্চিমে প্রতিষ্ঠিত বাইউষ্ট এর যাত্রা শুরু হয় ২০১৫ সালের ১৪ই ফেব্রুয়ারী। বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর বোর্ড অব ট্রাষ্টির মাধ্যমে পরিচালিত বাইউষ্ট প্রতিষ্ঠার পর থেকে শিক্ষার মান নিশ্চিত করণে নিয়মিত পাঠ্যμমের সাথে গুণগত শিক্ষায় শিক্ষার্থীদের গবেষণা কর্ম ও মানবিক মূল্যবোধের জ্ঞান চর্চায় ও দক্ষতা অর্জনের পাঠ্যμমে সফলতা বয়ে আনছে। শিক্ষকদের আন্তর্জাতিক মানের উচ্চতর প্রশিক্ষণ প্রদানের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের যোগ্যতর করে গড়ে তোলার প্রয়াস অব্যাহত রয়েছে। এ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বর্তমানে ৬টি বিভাগে ৩৯টি ব্যাচে ১ হাজার ১ শত ৮৩ জন ছাত্র-ছাত্রী অধ্যায়নরত রয়েছে। ২০১০ সালের প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ের আইনের আওতায় কোলাহল মুক্ত ও পরিচ্ছনড়ব মনোরম পরিবেশে প্রতিষ্ঠিত বাইউষ্ট সুষ্ঠু ভাবে পরিচালিত হওয়ায় শিক্ষার্থীদের লেখাপড়ার গুণগত মান অনেকাংশে বৃদ্ধি পেয়েছে। এ বিশ্ববিদ্যালয়ের ৬টি বিভাগের মধ্যে বিজ্ঞান, বাণিজ্য ও মানবিকে কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং, ইলেক্ট্রটিক্যাল ইলেকট্রনিক এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং এবং ইংরেজি, বিবিএ, এমবিএ ও এলএলবিতে পৃথক ফ্যাকাল্টির মাধ্যমে বাস্তবসম্মত উচ্চতর পাঠ্যμমে শিক্ষার্থীদের পাঠদান করা হচ্ছে।
বাইউষ্ট কুমিল্লা এর এক পরিসংখ্যানে জানা যায় এ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রথম ব্যাচে অধ্যায়নরত সিএসই এবং ট্রিপল ই তে শেষ বর্ষের ৯৭ জন উত্তীর্ণ পরীক্ষার্থীদের মধ্যে বর্তমানে ২৯ জন বিভিনড়ব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কর্মসংস্থানে নিয়োজিত রয়েছেন। এই দুটি বিষয়ে উত্তীর্ণ ৯৭ জন শিক্ষার্থীদের সিএসই ৫৯ জন শিক্ষার্থীদের ৪০ জন ছাত্র এবং ১৯ জন ছাত্রী, ট্রিপল ই তে ৩৮ জন শিক্ষার্থীদের মধ্যে ৩২ জন ছাত্র এবং ৬ জন ছাত্রী। উত্তীর্ণ পরীক্ষার্থীদের মধ্যে চাকুরীরত ২৯ জনের মধ্যে ২৭ জন ছাত্র এবং ২ জন ছাত্রী বলে জানা যায়।
বিগত ৪ বছরে বাইউষ্ট কুমিল্লার শিক্ষা কার্যμমে সন্তোষ প্রকাশ করে চলতি মাসে বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য রাষ্ট্রপতি মো: আবদুল হামিদ আগামী ৪ বছরের জন্য বাইউষ্ট কুমিল্লার উপাচার্য পদে ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব:) কে. এম. সালজার হোসেনকে নিয়োগদান করেন। বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে রাষ্ট্রপতি কর্তৃক বাইউষ্ট কুমিল্লার উপাচার্য পদে নিয়োগদান উচ্চতর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান হিসাবে স্বীকৃতি প্রদানে এ বিশ্ববিদ্যালয়টি আরো একধাপ এগিয়ে যাওয়ার শিক্ষক শিক্ষার্থী ও অভিভাবক মন্ডলী সকলেই সন্তোষ প্রকাশ করেন। বাইউষ্ট কুমিল্লার পরিচালনায় ১৩ সদস্য বিশিষ্ট বোর্ড অব ট্রাষ্টি চেয়ারম্যান পদে রয়েছেন সেনাবাহিনীর প্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ। ৯ সদস্য বিশিষ্ট সিন্ডিকেটের চেয়ারম্যানপদে বাইউষ্ট কুমিল্লার উপাচার্য ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব:) কে.এম সালজার হোসেন এবং সদস্য সচিব পদে রয়েছেন রেজিষ্ট্রার কর্ণেল (অব:) সুমন কুমার বড়–য়া এবং ১৪ সদস্য বিশিষ্ট একাডেমি কাউন্সিলর চেয়ারম্যান পদে উপাচার্য এবং সদস্য সচিব পদে রেজিস্ট্রার দায়িত্ব পালন করছেন।
বাইউষ্ট কুমিল্লার প্রশাসনিক কর্মকর্তা ব্যক্তি হিসাবে উপাচার্য ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব:) কে. এম সালজার হোসেন দীর্ঘদিনের কর্মময় জীবনের অভিজ্ঞতার আলোকে দক্ষতার সাথে সুষ্ঠুভাবে পরিচালনা করছেন। তাঁর সততা আন্তরিকতা ও ঐকান্তিক কর্মপ্রচেষ্টায় শিক্ষক শিক্ষার্থীদের সাথে নিবিড় সম্পর্কের কারণে সর্বস্তরের একজন বিশ্বস্ত আপনজন হিসেবে বাইউষ্ট কুমিল্লার কার্যμমে গতিশীলতা বেড়েছে। তিনি সকলের হৃদয়ে স্থান
করে নিয়েছেন। তাঁর দক্ষতায় পরিচালিত বাইউষ্ট কুমিল্লা এর সুপরিপাটিপূর্ণ মাল্টিমাডিয়া ক্লাসরুম, কম্পিউটার ল্যাব, কম্পিউটারাইজড আধুনিকতম ডিজিটাল পাঠাগার, শিক্ষক শিক্ষার্থীদের ক্যাফেটেরিয়া, মনোরম অডিটরিয়াম, শিক্ষার্থীদের ইনোভেশান কার্যμমের সুব্যবস্থাপনায় এক আর্দশ উচ্চতর শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হিসাবে সকলের আকর্ষণীয় হয়ে উঠেছে। বাইউষ্ট কুমিল্লায় নিয়মিত লেখাপড়ার পাশাপাশি সাংষ্কৃতিক, লেখাধুলাসহ গবেষণা ও উদ্বোবনী কার্যμম শিক্ষার্থীদের মাঝে ব্যাপক সাড়া জাগিয়েছে।
বাইউষ্ট কুমিল্লার সদ্য রাষ্ট্রপতি কর্তৃক নিয়োগপ্রাপ্ত উপাচার্য ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব:) কে. এম সালজার হোসেন সাংবাদিকদের সাথে একান্ত সাক্ষাতে জানান বর্তমান তথ্য প্রযুক্তির যুগে শুধুমাত্র সার্টিফিকেট নির্ভর শিক্ষায় শিক্ষিত না হয়ে বর্তমান সরকারের ভিশন উনড়বত বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠায় নতুন প্রজন্মের শিক্ষার্থীদের পরিবর্তিত আধুনিকতম প্রযুক্তি নির্ভর আন্তর্জাতিক মানের গুণগত শিক্ষায় শিক্ষিত করার লক্ষ্যে প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। তিনি বলেন আন্তর্জাতিক মানসম্মত শিক্ষা দানের জন্য এμেডিটেশন কাউন্সিল কর্তৃক অনুমোদিত সকল শিক্ষকদের প্রশিক্ষণ প্রদান করা হচ্ছে। বিদেশে লেখাপড়া ও চাকুরীতে পেশাদারিত্ব একজন দক্ষ ও অভিজ্ঞ সম্পনড়ব শিক্ষক হিসাবে গড়ার তোলার লক্ষ্যে প্রফেশনাল প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত শিক্ষক বিশ্বের ১৪৩ দেশে কর্মসংস্থান ও গবেষণা কর্মের সুযোগ সৃষ্টির লক্ষ্যে গড়ে তোলা হচ্ছে। তিনি দৃঢ়তার সাথে বলেন আগামী ২০২১ সালের মধ্যে সকল বাইউষ্ট এর সকল শিক্ষকদের প্রশিক্ষণ প্রদান করা হবে। এতে শিক্ষার্থীদের বর্তমান চাহিদা মোতাবেক সিলেবাসের বাইরে কারিকুলাম সংযুক্ত করে ব্যবহারিক ও গবেষণা মূলক শিক্ষাদানের ব্যবস্থা করা হবে। বর্তমানে বাইউষ্ট কুমিল্লায় কর্মরত ৮৩ জন অভিজ্ঞ ও দক্ষ শিক্ষক মন্ডলীর নিয়মানুবর্তিতার সাথে শিক্ষার্থীদের নিবিড় ভাবে পাঠদান করে আসছেন। তিনি বলেন বোর্ড অব ট্রাষ্টির অনুমোদনμমে ময়নামতি সেনানিবাসের সনিড়বকটে ঢাকা চট্টগ্রাম মহাসড়কের দক্ষিণাংশের কালা কচুয়ায় এলাকায় বাইউষ্ট কুমিল্লার নিজস্ব নতুন ক্যাম্পাস গড়ার লক্ষ্যে ইতিমধ্যে ৮ দশমিক ৬ একর জায়গা μয় করা হয়েছে। আগামী ২০২১ সালের মধ্যেই বড় পরিসরে নতুন ভবন নির্মাণের মধ্যে দিয়ে বাইউষ্ট এর শিক্ষা কার্যμমের পরিধি আরো বৃদ্ধি পাবে। তিনি ভবিষ্যতে বাইউষ্ট এ অঞ্চলের তথা জাতীয় পর্যায়ের এক অনন্য উচ্চতর বিদ্যাপীঠে পরিণত হবে বলে আশা প্রকাশ করেন

ফেসবুক মতামত

সর্বশেষ খবর

WP Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com