বগুড়ায় গুলিবিদ্ধ স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা অরেঞ্জ মারা গেছেন

বগুড়ায় গুলিবিদ্ধ স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা অরেঞ্জ মারা গেছেন

ছবি: সংগৃহীত।

বগুড়া ব্যুরো:
বগুড়া সদর উপজেলায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের গুলিতে আহত স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা নাজমুল হাসান অরেঞ্জ মারা গেছেন।
টানা ৮ দিন শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন থাকার পর সোমবার (১০ জানুয়ারি) রাত সাড়ে ১১টার দিকে মারা যান তিনি।
সোমবার রাতে শজিমেক হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডাক্তার আবদুল ওয়াদুদ স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা অরেঞ্জের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন গণমাধ্যমকে। তিনি জানান, গুলিবিদ্ধি হবার পর থেকেই চোখসহ অরেঞ্জের শরীরের অনেক অঙ্গই কাজ করছিল না। এরপরও সাধ্যমত চেষ্টা করা হয়েছে। সর্বশেষ সোমবার রাতে তিনি মারা গেছেন।
এর আগে, গত ২ জানুয়ারি রাত ৯টার দিকে নাজমুল হাসান অরেঞ্জ ও মিনহাজ হোসেন আপেলসহ ৩-৪ জন মালগ্রাম ডাবতলা মোড়ে বসে ছিলেন। এ সময় বেলতলা মোড় থেকে ৪-৫টি মোটরসাইকেলযোগে একদল যুবক ডাবতলা মোড়ে যায়। সেখানে নেমেই তারা অরেঞ্জ ও তার সঙ্গীদের লক্ষ্য করে কয়েক রাউন্ড গুলি ছোঁড়ে। এসময় একটি করে গুলি আপেলের পেটে এবং অরেঞ্জের মাথায় বিদ্ধ হয়। পরে হামলাকারীরা অরেঞ্জ, আপেল এবং তাদের আরেক সঙ্গীকে কুপিয়ে সেখান থেকে সটকে পড়ে।
ঘটনার পরদিন অরেঞ্জের স্ত্রী স্বর্ণালী বাদী হয়ে সদর থানায় একটি হত্যাচেষ্টা মামলা দায়ের করেন। সদর থানার ওসি সেলিম রেজা জানান, হত্যাচেষ্টা মামলাটি নিয়ম অনুযায়ী হত্যা মামলায় রূপ নেবে। মামলার ১১ আসামির মধ্যে এরইমধ্যে একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।
জেডআই/

সুত্রঃ যমুনা টিভি

  • শেয়ার করুন
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com