প্রথা ভাঙার বিয়ে, সংবিধান ছুঁয়ে নতুন জীবনের সূচনা

প্রথা ভাঙার বিয়ে, সংবিধান ছুঁয়ে নতুন জীবনের সূচনা

সম্প্রতি উড়িষ্যার বহরমপুরে এক নবদম্পতির সন্ধান মিলেছে, যারা বিয়ের প্রচলিত নিয়মকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে বিয়ে করেছেন ভারতের সংবিধান ছুঁয়ে। খবর এনডিটিভির।জানা গেছে, পাত্র বিজয় কুমার ও পাত্রী শ্রুতি সাক্সেনা চেন্নাইয়ের একটি বেসরকারি সংস্থায় কর্মসুত্রে পরিচিত ছিলেন, সেই পরিচয় থেকেই প্রেমে জড়ান তারা। সম্প্রতি বিবাহ বন্ধনেও আবদ্ধ হয়েছেন বিজয়-শ্রুতি জুটি। তবে তাদের বিয়ে প্রচলিত হিন্দু প্রথায় হয়নি। বিয়েতে ছিল না কোনো পুরোহিত বা মন্ত্রোচ্চারণ। এমনকি আগুনকে সাক্ষী রেখে সাত পাকেও বাঁধেননি পরস্পরকে। বরং ভারতের সংবিধানকে সাক্ষী রেখে বিয়ে করেছেন এ নব দম্পতি।

বিয়েতে বিজয়-শ্রুতি পরস্পরের গলায় মালা পরিয়ে দেন, তারপরই ভারতের সংবিধান ছুঁয়ে শপথ নেন নতুন জীবনের। জানা গেছে, তাদের বিয়েতে ভারতের তিনটি রাজ্যের মেলবন্ধন ঘটেছে। সেজন্যই ভারতের মতো বৈচিত্র্যে ভরা দেশের সংবিধানকে সাক্ষী রেখে নতুন জীবন শুরু করার শপথ নিলেন তারা। বিজয়-শ্রুতি জুটি তাদের বিয়েতে উপহার গ্রহণের ক্ষেত্রেও তৈরি করেছেন একটি ব্যতিক্রমী উদাহরণ। নবদম্পতিকে আশীর্বাদ করতে দামি উপহারসামগ্রীর বদলে অতিথিদের রক্তদানের আবেদন করেন তারা। সেই আবেদনকে মাথায় রেখে রিসেপশনে বসানো হয় রক্তদান ক্যাম্প। বিয়েতে বিজয়-শ্রুতি জুটির এমন কর্মকাণ্ডে উদ্বুদ্ধ হয়ে মরনোত্তর দেহদানের শপথ নিতে আবেদন করেন আমন্ত্রিত অতিথীদের বেশ কয়েকজন।
বিজয়ের বাবা ডা. মোহন রাও জানান, ২০১৯ সালে তার বড় ছেলেও পাত্রীপক্ষকে রাজি করিয়ে একই কায়দায় বিয়ে করেছিলেন। এবারও বিজয়ের পরিবার শ্রুতির অভিভাবকদের বুঝিয়ে সংবিধান ছুঁয়ে বিয়ের অনুষ্ঠান আয়োজনের সম্মতি নেন। /এসএইচ

সুত্রঃ যমুনা টিভি

  • শেয়ার করুন
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com