পুলিশকে মারধরের মামলায় জামায়াতের ৫ নেতা কারাগারে

পুলিশকে মারধরের মামলায় জামায়াতের ৫ নেতা কারাগারে

মো. জাহাঙ্গীর আলম ইকবাল, রস্তুম আলী, গোলাম ফারুক, কাজী নজরুল ইসলাম খাদেম, মো. জাহিদুল ইসলাম (বা থেকে)। ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি: ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পুলিশ সদস্যদের মারধর ও পুলিশের গাড়ি ভাঙচুর-অগ্নিসংযোগের মামলায় জামায়েত ইসলামীর বর্তমান ও সাবেক পাঁচ নেতাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। রোববার ব্রাহ্মণবাড়িয়ার মুখ্য বিচারিক হাকিম আদালতের বিচারক মো. মাসুদ পারভেজ তাদেরকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। এরা হলেন- কাজী নজরুল ইসলাম খাদেম, গোলাম ফারুক, মো. জাহিদুল ইসলাম, রস্তুম আলী ও মো. জাহাঙ্গীর আলম ইকবাল। রোববার বিকেলে জেলা পুলিশের বিশেষ শাখার (ডিএসবি) পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানা গেছে। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ২০১২ সালের ৪ ডিসেম্বর সকালে জেলা পুলিশের একটি ট্রাক পুলিশ লাইন্স থেকে পুলিশ সদস্যদের জন্য নাস্তা নিয়ে কাউতলি যাচ্ছিল। পথিমধ্যে শহরের পীরবাড়ি এলাকায় দুষ্কৃতিকারীরা গাড়িতে থাকা পুলিশ সদস্যদের মারধর, ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করে। এ ঘটনায় ওইদিনই ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর থানায় মামলা দায়ের করা হয়। গত ১০ অক্টোবর ব্রাহ্মণবাড়িয়ার মুখ্য বিচারিক হাকিম আদালতের বিচারক মো. মাসুদ পারভেজ মামলার বিচারিক কার্যক্রম শেষে এজাহার নামীয় ও ঘটনায় জড়িত পলাতক সকল আসামিদের প্রত্যেককে দুই বছরের সশ্রম কারাদণ্ড ও দুই হাজার টাকা অর্থদণ্ড অনাদায়ে আরও এক মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেন। বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, আজকে (রোববার) মামলার আসামি কাজী নজরুল ইসলাম খাদেম, গোলাম ফারুক, মো. জাহিদুল ইসলাম, রস্তুম আলী ও মো. জাহাঙ্গীর আলম ইকবাল আদালতে আত্মসমর্পণ করলে বিচারক তাদেরকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। উল্লেখ্য, উক্ত মামলার ২১ আসামির মধ্যে ১৬ জন ইতোপূর্বে আদালতে আত্মসমর্পণ করার পর বিচারক তাদেরকে কারাগারে পাঠিয়েছেন।

সুত্রঃ যমুনা টিভি

  • শেয়ার করুন
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com