পাবনায় নির্যাতিত গৃহবধূ উদ্ধার, জব্দ দেশীয় অস্ত্র

পাবনায় নির্যাতিত গৃহবধূ উদ্ধার, জব্দ দেশীয় অস্ত্র

পাবনায় নির্যাতিত গৃহবধূ উদ্ধার, জব্দ দেশীয় অস্ত্র

পাবনা প্রতিনিধি:
পাবনার চাটমোহর উপজেলার কুমারগাড়া গ্রাম থেকে নির্যাতনের শিকার মুন্নী খাতুন (২০) নামের এক গৃহবধূকে উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ।
মুন্নী উপজেলার বিলচলন ইউনিয়নের কুমারগাড়া গ্রামের লুৎফর রহমানের ছেলে জনি হোসেনের স্ত্রী এবং উপজেলার পার্শ্বডাঙ্গা গ্রামের আবু বক্কারের মেয়ে।
শুক্রবার (৩০ জুলাই) দুপুরে আহত গৃহবধূ মুন্নী খাতুনকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এসময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে পালিয়ে যায় জনি। তবে পুলিশ চাপাতি, ছুরি, রামদা, হাসিয়াসহ বেশকিছু দেশীয় অস্ত্র জব্দ করে।
সর্বশেষ বৃহস্পতিবার (২৮ জুলাই) মুন্নীকে নির্যাতন করে জনি। এতে ধারালো অস্ত্রের আঘাতে কান কেটে যায় মুন্নীর। এ বিষয়ে শুক্রবার মুন্নীর বাবা চাটমোহর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, লুৎফর রহমানের ছেলে জনি হোসেনের সাথে ২ বছর আগে বিয়ে হয় আবু বক্কারের মেয়ে মুন্নী খাতুনের। বিয়ের কিছুদিন যেতে না যেতেই যৌতুকের জন্য মুন্নীকে নির্যাতন শুরু করে জনি। তবে সম্প্রতি সেই নির্যাতনের মাত্রা বেড়ে যায়।
এলাকাবাসী জানায়, জনি ইতোপূর্বেও একাধিক বিয়ে করেছিল। এলাকায় নানা অপরাধের সাথে জড়িত সে। গ্রামে কোন ব্যক্তির কথা শোনেন না।
চাটমোহর থানার অফিসার ইনচার্জ মুহাম্মদ আনোয়ার হোসেন জানান, খবর পাওয়া মাত্রই ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়। মেয়েটি নির্যাতন সইতে না পেরে পালানোর চেষ্টাও করে। তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। জনির বাড়ি থেকে কিছু দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে। পরবর্তীতে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

সুত্রঃ যমুনা টিভি

  • শেয়ার করুন
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com