পাঁচদিন মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে মারা গেলো নির্বাচনী সহিংসতায় আহত অখিল

পাঁচদিন মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে মারা গেলো নির্বাচনী সহিংসতায় আহত অখিল

ফাইল ছবি।

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি:
পাঁচদিন মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে অবশেষে মারা গেলো আহত অখিল সরকার (৫৫)। এ নিয়ে ঝিনাইদহ শৈলকুপা উপজেলার সারুটিয়া ইউনিয়নে নির্বাচনী সহিংসতায় তিনজনের মৃত্যু হলো।
বুধবার (৫ জানুয়ারি) দুপুরে কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।
শৈলকুপার থানার উপপরিদর্শক মো. আমিরুজ্জামান বলেন, গত ৩১ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় সারুটিয়া ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ প্রার্থী মাহমুদুল হাসান ও আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী জুলফিকার কায়সারের কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে কাতলাগাড়ি বাজারে সংঘর্ষ হয়। এতে পাঁচজন আহত হন।
আহত ব্যক্তিদের মধ্যে শৈলকুপা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হলে ওই দিনই হারান আলীর মৃত্যু হয়। গুরুতর আহত অবস্থায় অখিল সরকারকে কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ দুপুরে অখিল সরকার মারা যান। অখিল সরকার ইউনিয়নের কিত্তিনগর গ্রামের নিরাপদ সরকারের ছেলে।
এছাড়া ১ জানুয়ারি নির্বাচনী সহিংসতার সময় ছুরিকাঘাতে জসিম উদ্দিন নামের একজনের মৃত্যু হয়েছে। তবে আজ সারুটিয়া ইউপিতে কোনো ধরনের সহিংসতা ছাড়াই ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে।এনবি/

সুত্রঃ যমুনা টিভি

  • শেয়ার করুন
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com