পশ্চিম তীরে কংক্রিটের দেয়াল নির্মাণ করবে ইসরায়েল; স্থায়ী দখলদারিত্বের শঙ্কা ফিলিস্তিনের

পশ্চিম তীরে কংক্রিটের দেয়াল নির্মাণ করবে ইসরায়েল; স্থায়ী দখলদারিত্বের শঙ্কা ফিলিস্তিনের

দখলকৃত পশ্চিম তীরে এবার কংক্রিটের দেয়াল নির্মাণের জোর তোড়জোর শুরু করেছে ইসরায়েল। এরই মধ্যে দেশটির প্রতিরক্ষামন্ত্রী এর অনুমোদন দিয়েছেন। ডিসেম্বরেই দেয়াল নির্মাণের কাজ শুরু হতে পারে বলে জানা গেছে। ফলে শঙ্কা বাড়ছে ফিলিস্তিনিদের মনে। তাদের দাবি, পশ্চিম তীরকে স্থায়ীভাবে দখলের জন্যই এ উদ্যোগ নিয়েছে ইসরায়েল।
ওয়াশিংটনভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-মনিটরের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে। এর আগে গত ১৪ নভেম্বর ইসরায়েলের প্রতিরক্ষামন্ত্রী বেনি গ্যান্টজ ২০ বছর আগে স্থাপিত কাঁটাতারের বেড়া সরিয়ে স্থায়ী কংক্রিটের দেয়াল নির্মাণের অনুমোদন দেন। প্রায় ১০০ কিলোমিটার জুড়ে নির্মিতব্য এ দেয়ালে থাকবে আধুনিক প্রযুক্তির নজরদারি ব্যবস্থা।
ইসরায়েলের দাবি, ১৯৬৭ সালে নির্ধারিত সীমানা বরাবর এই দেয়াল নির্মাণ করা হবে। তবে ইউনাইটেড ন্যাশনস অফিস ফর দ্য কো–অর্ডিনেশন অব হিউম্যানিটারিয়ান অ্যাফেয়ার্স ২০১৩ সালের জুলাইয়ে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে বলেছে, ইসরায়েলের তৈরি সব ধরনের নিরাপত্তা দেয়ালের ৮৫ শতাংশ পশ্চিম তীরের ভূখণ্ডে অবস্থিত গ্রিন লাইন বরাবর নির্মিত হয়নি। এর আগে, ২০০৪ সালে আন্তর্জাতিক বিচার আদালত এ ধরনের নিরাপত্তা দেয়াল নির্মাণ অবৈধ বলে ঘোষণা করে।
জেরুজালেমের অ্যাপ্লাইড রিসার্চ ইনস্টিটিউটের সেটেলমেন্ট মনিটরিং ইউনিটের প্রধান সুহেল খালিলিয়া আল-মনিটরকে জানিয়েছেন, দেয়ালের আসল লক্ষ্য হলো, পশ্চিম তীরের জন্য নতুন সীমানা নির্ধারণ। দেয়ালটি পশ্চিম তীরের প্রায় সাড়ে ১২ শতাংশ জমি কেড়ে নেবে।
এসজেড/

সুত্রঃ যমুনা টিভি

  • শেয়ার করুন

সর্বশেষ খবর

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com