নড়াইল সদর হাসপাতালের ১১ জনকে শোকজ, ১ জনকে অব্যাহতি

নড়াইল সদর হাসপাতালের ১১ জনকে শোকজ, ১ জনকে অব্যাহতি

নড়াইল সদর হাসপাতালের চিকিতসকসহ ১১ জনকে শোকজ, ১ জনকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে।
রোববার (১৯ ডিসেম্বর) দুপুরে আবারও পরিদর্শন করেন নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য মাশরাফী বিন মোর্ত্তজার। তিনি হাসপাতালেরবিভিন্ন ওয়ার্ডের রোগীর সাথে কথা বলেন তাদের খোঁজখবর নেন। এসময়হাসপাতালের টয়েলটগুলোও পরিদর্শন করেন সংসদ সদস্য মাশরাফী। মাশরাফীর নির্দেশে ৮ জন চিকিৎসক ও ২ জন মেডিকেল প্যাথলজিস্ট ও ১ জন কর্মচারীকে শোকজ করা হয়েছে।
এছাড়া রোগীদের খাবার কম দেয়ায় আউটসোর্সিংয়ের ১ জন কর্মচারীকেঅব্যাহতি দেয়ার জন্য ঠিকাদারকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।
এর আগে শনিবার সকাল ৮টায় নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য মাশরাফী ঝটিকা সফরে নড়াইল সদর হাসপাতালে যান। হাসপাতালের বিভিন্ন অনিয়মের চিত্র দেখে ক্ষুদ্ধ হয়ে ব্যবস্থা গ্রহনের নির্দেশ দেন তত্বাবধায়কে।
জানা গেছে, নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য মাশরাফী নড়াইল আধুনিক সদর হাসপাতালে অকস্মাৎ উপস্থিত হয়ে হাসপাতালের সংশ্লিষ্টদের না দেখে রোগীদের ওয়ার্ডে প্রবেশ করেন। এ সময় রোগীরা তার কাছে খাদ্যে অনিয়ম, প্রয়োজনীয় ওষুধ না দেয়া, চিকিৎসকরা ঠিকমত রোগীদের না দেখাসহ বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগ তুলে ধরেন।
শুক্রবার রাতে হাসপাতালের মাত্র ৩ জন রোগীকে খাবার দেয়া হয়েছে বলেও রোগীরা জানান। এছাড়া চিকিৎসক-কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সময়মত হাজির না হওয়া, ছুটি না নিয়ে চিকিৎসক-কর্মচারীদের অফিসে না আসাসহ বিভিন্ন অনিয়ম দেখতে পান এমপি মাশরাফী।
এসব অভিযোগের বিষয়ে হাসপাতালের তত্বাবধায়ক ডা. আসাদ উজ্জামান মুন্সীর নিকট জানতে চাইলে বিষয়টি তিনি মানতে নারাজ হন। অবশেষে মাশরাফী চ্যালেঞ্জ করলে হেরে যান তিনি।
আরও পড়ুন- জুতা সেলাইকারী বন্ধুর সঙ্গে গল্পে মজেছেন মাশরাফী; ছবি ভাইরাল
সদর হাসপাতালের তত্বাবধায়ক ডা. আসাদ-উজ্জামান মুন্সী জানান,শনিবার সকাল ৯টার পরে আসায় ৮ জন চিকিৎসক ও ২ জন মেডিকেলপ্যাথলজিস্টকে শোকজ করা হয়েছে। এছাড়া শিশু ওয়ার্ডে গত শুক্রবার রাতে ১৭ জনের জায়গায় ৩ জনকে খাবার দেওয়ায় ডায়েটের দায়িত্বে থাকা ১ জন কর্মচারীকে শোকজ করা হয়েছে। এর সঙ্গে জড়িত অভিযোগেআউটসোর্সিং-এর ১ জন কর্মচারীকে অব্যাহতি দেওয়ার জন্য ঠিকাদারকেনির্দেশ দেয়া হয়েছে।

সুত্রঃ যমুনা টিভি

  • শেয়ার করুন
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com