নৌকায় ভোট দিলে বাড়ির বউদের সিঁদুর পরতে হবে: জামায়াত নেতার এ কী বক্তব্য!

নৌকায় ভোট দিলে বাড়ির বউদের সিঁদুর পরতে হবে: জামায়াত নেতার এ কী বক্তব্য!

সিনিয়র রিপোর্টার, জয়পুরহাট:
‘আপনারা কি নিজের স্ত্রীর মাথায় সিঁদুর পরাতে চান? যদি সিঁদুর পরাতে চান, তাহলে নৌকায় ভোট দেন।’ জয়পুরহাটের সদর উপজেলার ভাদসা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে এক বিদ্রোহী প্রার্থীর পথসভায় এমন মন্তব্য করেছেন আবু জাফর নামের জামায়াতের এক নেতা। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বিদ্রোহী চেয়ারম্যান প্রার্থী হায়দার আলী, যিনি নিজেও আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, বুধবার (২২ ডিসেম্বর) বিকেলে ভাদসা উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী হায়দার আলীর পক্ষ থেকে পথসভার আয়োজন করা হয়। সভায় হায়দার আলীর ‘ঘোড়া মার্কা’ প্রতীকে ভোট চেয়ে বক্তব্য দেন তার পক্ষের নেতাকর্মীরা। তাতে ওই ইউনিয়নের জামায়াত নেতা আবু জাফর ও আবুল কালাম নৌকা মার্কার বিরুদ্ধে আপত্তিকর বক্তব্য রাখেন।
আবুল কালাম বলেন, এই নৌকা প্রতীক আমাদের অসংখ্য মানুষকে নিঃস্ব করে বাড়ি ফিরিয়ে দিয়েছে। যারা আজকে ভাবছেন তারা জানেন, এই নৌকা প্রতীক অসংখ্য মানুষকে শেষ করে দিয়েছে।
বিদ্রোহী প্রার্থী হায়দার আলীর পথসভায় জামায়াত নেতাদের দেয়া এমন বক্তব্য শোনার পর আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের মধ্যে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে।
এ প্রসঙ্গে জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক গোলাম মাহফুজ চৌধুরী বলেন, আওয়ামী লীগের ১৪ বছরের শাসনামলে কাউকে সিঁদুর পরতে হয়নি। অথচ ভাদসা ইউপি নির্বাচনে দলের বিদ্রোহী প্রার্থীর পথসভায় প্রকাশ্যে মাইকে আ’লীগ সম্পর্কে এত বড় অপপ্রচার কখনও মেনে নেয়া যায় না। সাম্প্রদায়িকতাকে উসকে দেয়ার জন্য সরকার বিরোধী চক্রের এমন অপতৎপরতা বন্ধে তিনি আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানান।
ভাদসা ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী ছরোয়ার হোসেন স্বাধীন বলেন, কেন্দ্রে পাঠানো আ’লীগের প্রার্থী তালিকায় হায়দার আলীর নাম ছিল এক নম্বরে। তিনি মনোনয়ন না পাওয়ায় ঘোড়া প্রতীক নিয়ে চেয়ারম্যান পদে বিদ্রোহী প্রার্থী হয়েছেন। আমার গণজোয়ার দেখে দলের কিছু লোকজন এবং জামায়াত নেতাকর্মী নৌকার অপপ্রচার করছে।
এ বিষয়ে জয়পুরহাট জেলার পুলিশ সুপার মাছুম আহাম্মদ ভুঞা বলেন, বিষয়টি নজরে এসেছে। এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।
প্রসঙ্গত, বিদ্রোহী চেয়ারম্যান প্রার্থী হায়দার আলী জয়পুরহাট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেনের চাচা।

সুত্রঃ যমুনা টিভি

  • শেয়ার করুন
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com