নওগাঁয় নির্বাচনী সহিংসতায় স্বতন্ত্র প্রার্থী ফারজানাসহ গ্রেফতার ৪

নওগাঁয় নির্বাচনী সহিংসতায় স্বতন্ত্র প্রার্থী ফারজানাসহ গ্রেফতার ৪

নিজস্ব প্রতিবেদক, নওগাঁ:
নওগাঁর পত্নীতলায় তিনটি ভোট কেন্দ্রে সহিংসতা, পুলিশের গাড়িতে অগ্নিসংযোগ, অস্ত্র ছিনতাই ও হামলার ঘটনায় মামলা হয়েছে। এতে ১১৩ জনের নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাত দুই থেকে আড়াই হাজার ব্যক্তির বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়েছে।
বৃহস্পতিবার (৬ জানুয়ারি) বিকেলে মামলায় অভিযুক্ত ঘোষনগর ইউনিয়ন পরিষদে স্বতন্ত্র (আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী) চেয়ারম্যান প্রার্থী ফারজানা পারভীনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এসময় ফারজানা পারভীনের স্বামী মতিউর রহমানসহ মোট চারজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।
মামলার এজহারে উল্লেখ করা হয়, বুধবার (৫ জানুয়ারি) পঞ্চম ধাপে পত্নীতলা উপজেলার ঘোষনগর ইউনিয়নের ঘোষনগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও কমলাবাড়ী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র এবং নজিপুর ইউনিয়নের রঘুনাথপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোট গ্রহণের পর গণনা ও ফলাফল ঘোষণা বিলম্বিত হয়।
সংশ্লিষ্ট ভোটকেন্দ্রের প্রিজাইডিং কর্মকর্তারা ফলাফল ঘোষণা না করেই কেন্দ্র ত্যাগ করার চেষ্টা করে। এসময় কেন্দ্রগুলোর আশপাশে থাকা কয়েক হাজার মানুষ পুলিশ, আনসার ও ভোটগ্রহণের দ্বায়িত্বে থাকা কর্মকর্তাদের পথ রোধ করে। ভোটের দ্বায়িত্বে থাকা স্ট্রাইকিং ফোর্সের ইনচার্জ পুলিশ পরিদর্শক আব্দুল গণি ও পত্নীতলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সঙ্গীয় পুলিশ সদস্য নিয়ে তাদেরকে উদ্ধার করতে যায়।
উত্তেজিত জনতা ঘোষনগর কেন্দ্রের কাছে একটি পুলিশ পিকআপ ও রিকুইজিশন করা একটি মাইক্রোবাসে আগুন ধরিয়ে দেয়। এসময় পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে শটগান থেকে ২৮ রাউন্ড গুলি নিক্ষেপ করে।
সংঘর্ষের সময় একজন পুলিশ সদস্যের কাছ থেকে একটি শটগান ও ২০ রাউন্ড গুলি ছিনতাই করে দুবৃর্ত্তরা। রঘুনাথপুর ভোটকেন্দ্রের কাছে কর্তব্যরত ভোটগ্রহণ কর্মকর্তা, পুলিশ ও আনসার সদস্যদের উদ্ধার করতে গিয়ে পুলিশের স্ট্রাইকিং ফোর্সের সদস্যদের সাথে স্থানীয় জনগণের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ সময় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ ১১১ রাউন্ড গুলি নিক্ষেপ করে বলে এজহারে উল্লেখ করা হয়।
আরও পড়ুন: মাত্র ১ ভোটে নৌকা প্রার্থীর পরাজয়!
পত্নীতলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি তদন্ত হাবিবুর রহমান জান, পুলিশের ওপর হামলা, গাড়িতে অগ্নিসংযোগ ও অস্ত্র ছিনতাইয়ের অভিযোগে আজ বৃহস্পতিবার ১১৩ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত আরও অনেককে আসামি করা হয়েছে।
ওই মামলায় ঘোষনগর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ফারজানা পারভীনকে প্রধান আসামি করা হয়েছে। এরইমধ্যে প্রধান আসামিসহ ৪ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। পুলিশের কাছ থেকে ছিনতাই হওয়া অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার এবং এ ঘটনার সাথে জড়িত বাকি আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলেও জানান তিনি।

/এনএএস

সুত্রঃ যমুনা টিভি

  • শেয়ার করুন
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com