চুয়াডাঙ্গায় ঘুমন্ত অবস্থায় বিজিবির সোর্সকে গুলি করে হত্যা

চুয়াডাঙ্গায় ঘুমন্ত অবস্থায় বিজিবির সোর্সকে গুলি করে হত্যা

হাসপাতালে চিকিৎসারত অবস্থাতেই মৃত্যু হয় বিজিবির সোর্স হিসেবে কাজ করা সেই ব্যক্তির।

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি:
চুয়াডাঙ্গার দর্শনা থানার নাস্তিপুরে গ্রামে ঘুমন্ত অবস্থায় হযরত আলী নামে একজনের ওপর গুলি চালিয়েছে দুর্বৃত্তরা। মঙ্গলবার (২৮ ডিসেম্বর) দিনগত রাত রাত ১টার দিকে এ হামলার ঘটনা ঘটে। পরে তাকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নেয়ার কিছুক্ষণ পর রাত পৌনে ৩টার দিকে তার মৃত্যু হয়। হযরত আলী নাস্তিপুর গ্রামের মৃত রইচউদ্দীনের ছেলে।
পুলিশ ও স্বজনরা জানায়, প্রতিদিনের মতো মঙ্গলবার রাতে নিজ শয়নকক্ষে ঘুমিয়ে ছিলেন হযরত আলী। এসময় তার কক্ষের জানালার ফাঁক দিয়ে গুলি বর্ষণ করে দুর্বৃত্তরা। গুলিবিদ্ধ হয়ে তিনি গুরুতর জখম হলে তাকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নেয়া হয়। হাসপাতালে নিলে রাত ২টা ৫০ মিনিটে তার মৃত্যু হয়।
আরও পড়ুন: ঝিনাইদহে যবিপ্রবির বাস ভাঙচুর, শিক্ষার্থীদের মারধরের অভিযোগ
নিহতের ছেলে তৌফিক হাসান বলেন, নিজ ঘরে নিচে ঘুমিয়ে ছিলের আমার মা ও খাটে ঘুমিয়ে ছিল আমার বাবা। মধ্যরাতে হঠাৎ গুলির শব্দে বাবার ঘরে ছুটে গিয়ে দেখি বাবা গুলিবিদ্ধ হয়ে পড়ে আছে। পরে তাকে উদ্ধার করে মোটরসাইকেলযোগে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নিই।
তৌফিকের দাবি, তার বাবা বিজিবির সোর্স হিসেবে কাজ করতেন। হয়তো এ কারণেই তাকে হত্যা করা হয়েছে।
চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. সৌরভ হোসেন জানান, মাথার মাঝখানে গুলিবিদ্ধ হয়ে হাসপাতালে আসেন হযরত আলী। কিছুক্ষণ জরুরি বিভাগে রেখে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হলে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের কারণে মারা যান তিনি।
দর্শনা থানার ওসি লুৎফুল কবীর জানান, গুলিতে হযরত আলীর মৃত্যু হয়েছে। কি কারণে তাকে হত্যা করা হয়েছে তা এখনই বলা যাচ্ছে না। পরবর্তীতে বিস্তারিত জানানো হবে।
এসজেড/

সুত্রঃ যমুনা টিভি

  • শেয়ার করুন
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com