গণটিকার খবরই জানেন না ঠাকুরগাঁওয়ে বহু মানুষ

গণটিকার খবরই জানেন না ঠাকুরগাঁওয়ে বহু মানুষ

ঠাকুরগাঁওয়ে চলছে গণটিকা কার্যক্রম। অথচ প্রচারণার ঘাটতির কারণে প্রান্তিক পর্যায়ের বহু মানুষ তা জানেই না। ফলে গণটিকা কার্যক্রমের লক্ষ্যমাত্রা পূরণ হওয়া নিয়ে তৈরি হয়েছে অনিশ্চয়তা। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, আন্তঃবাজেট না থাকায় যোগাযোগের মাধ্যমে প্রচারণা চালিয়েছে মাঠ পর্যায়ের স্বাস্থ্যকর্মীরা।
করোনার টিকা পেতে অনলাইনে রেজিস্ট্রেশন করেছিলেন ঠাকুরগাঁও সদরের মুদি দোকানি আকছেদ আলী খান। কাজের চাপে শহরে টিকা দিতে যেতে পারেননি ষাটোর্ধ্ব আকছেদ। অথচ কয়েকদিন ধরে বাড়ির পাশেই চলছে গণটিকা কার্যক্রম। সেটিও জানেন না তিনি।
প্রচারের অভাবে গণটিকার বিষয়ে আকছেদের মতই অন্ধকারে গ্রামের অনেক মানুষ। প্রতি কেন্দ্রে দিনে ৩শ জনকে টিকা দেয়ার কথা থাকলেও তা একশর ওপরে উঠতেই হিমশিম অবস্থা। স্থানীয়রা বলছেন, প্রচার থাকলে সহজেই পূরণ হতো লক্ষ্যমাত্রা।
ঠাকুরগাঁও সিভিল সার্জন ডা. নুর নেওয়াজ আহমেদ বলছেন, প্রচারের জন্য কোনো বাজেট বরাদ্দ নেই। ব্যকিগতভাবে মাঠ পর্যায়ে প্রচার চালাচ্ছে স্বাস্থ্যকর্মীরা। সময় হাতে থাকায় সবাইকে টিকার আওতায় আনার ব্যাপারে আশাবাদী তিনি।
ঠাকুরগাঁওয়ে ২ জানুয়ারি থেকে শুরু হয়েছে গণটিকা কার্যক্রম। যেখানে স্পট রেজিস্ট্রশনের মাধ্যমে ভ্যাকসিন পাচ্ছেন টিকাপ্রত্যাশীরা।
/এডব্লিউ

সুত্রঃ যমুনা টিভি

  • শেয়ার করুন
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com