কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে কবর খুঁড়তে ভেসে উঠলো আরবি লেখা

কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে কবর খুঁড়তে ভেসে উঠলো আরবি লেখা

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি: এক মৃত ব্যক্তির কবর খোঁড়ার সময় আরবি অক্ষর লেখার ছাপ বের হয় কবরের দু’পাশের মাটিতে। কবরের পশ্চিম পাশে বিসমিল্লাহ, সুরা ইয়াসিন অক্ষরের অংশ এবং পূর্ব দিকে মীম হা মীম দাল অক্ষর। অবিশ্বাস্য হলেও এই অলৌকিক ঘটনাটি ঘটেছে কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ি উপজেলার সদর ইউনিয়নের পশ্চিম পানিমাছকুটি গ্রামে। খবরটি ছড়িয়ে পড়লে এক নজরে দেখতে শত-শত মানুষের ভিড় জমে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ মোতায়েন করা হয়। জানা যায়, পশ্চিম পানিমাছকুটি গ্রামের বাসিন্দা মৃত আব্দুল জবার আলীর ছেলে ইসমাইল খোঁড়ার ঢাকার মহাখালীর ব্র্যাক এনজিওতে চাকুরী করতেন। তিনি গতকাল বুধবার রাত ১০টার সময় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেন। তার লাশ স্বজনরা নিয়ে এসে পারিবারিক কবর স্থানে দাফন করার জন্য। বৃহস্পতিবার কবর খোঁড়ার জন্য স্থানীয় বাসিন্দা আব্দুল বারী ও আমির হোসেন। কবরের ওপরের অংশ খোঁড়ার সময় বের হয়ে আসে আরবি অক্ষর লেখা। বিষয়টি প্রথম তারা দেখে চমকে যান। পরে ধারালো অস্ত্র দিয়ে তারা যতবার মাটি কেটে দেন লেখা বন্ধ না হয় তা আরও স্পষ্ট হয়ে ওঠে। মৃতের বড় ভাই ইব্রাহিম আলী জানান, আমার ছোট ভাই এক সন্তানের জনক ছিলেন। তার স্ত্রীর নাম হাজেরা বেগম। বর্তমানে সে গর্ভবতী। ছাত্রজীবন থেকে নামাজি ছিলেন। চার ভাই-তিন পংবমনমধ্যে তিনি ছিলেন তৃতীয়। বালারহাট আদর্শ স্কুল অ্যান্ড কলেজের প্রভাষক মমিনুল ইসলাম বলেন, কবরে আরবি অক্ষর আমার জীবনে দেখি নাই। এ প্রথম দৃশ্য চোখে পড়ল। এটা মহান আল্লাহর এক অলৌকিক শক্তি। নদীর কুটি চপথি জামে মসজিদের ইমাম ও বড়লই এলাকার হাফেজ মাওলানা আব্দুল হক জানান, কবরের দুই পাঁজরের পশ্চিমে বিসমিল্লাহ, সুরা ইয়াসিন অক্ষরের কিছু অংশ। পূর্ব পাশে মীম হা মীম দাল (মোহাম্মদ) নাম রয়েছে। আমি নিজেই পড়েছি। এটা আল্লাহ প্রদত্ত এক রহমত। ফুলবাড়ী থানার অফিসার ইনর্চাজ (ওসি) রাজীব কুমার রায় জানান, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের জন্য পুলিশ ফোর্স ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়েছে। লাশ দ্রুত দাফন করার জন্য স্থানীয় জন প্রতিনিধিদলকে অবগত করা হয়েছে।

সুত্রঃ যমুনা টিভি

  • শেয়ার করুন
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com