কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার ডুবাইরচর গ্রামে যুবকের আত্মহত্যা

কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার ডুবাইরচর গ্রামে যুবকের আত্মহত্যা

বুধবার দুপুর ২ঃ৩০ মিনিটে কুমিল্লা জেলার বুড়িচং উপজেলার ডুবাইরচর গ্রামের পোল্ট্রি ফার্মে গলায় ফাঁস দিয়ে এক যুবক আত্মহত্যা করে, ছেলেটির নাম মোঃ সজীব (১৬), পিতা মোঃ বাবুল মিয়া, জেলা রংপুর, গ্রাম শন্তেস পুর, পোঃ কাজীর হাট, উপজেলা বদ্দরগজ, রংপুর। বাবুল মিয়ার একটি ছেলে ও একটি মেয়ে,ছেলেটিই বড়। সজীবের বাবার বর্তমান ঠিকানা, নিমসার এড. শরিফ উদ্দিনের বাড়ির পাশেই প্রায় ২৫/২৬ বছর তার বাবা সম্পূর্ণ পরিবার নিয়ে ভাড়া থাকে। ঘটনা স্থল থেকে জানা যায় শাহদিলের বাগ গ্রামের পোল্ট্রি ব্যবসায়ী জসিম, ডুবাইরচর গ্রামের রুবেলের কাছ থেকে এই ফার্মটি ২ বছরের জন্য লিজ নেয়। আর সেই ফার্মে ৫/৬ মাস ধরে কাজ করে আসছে সজীব। পোল্ট্রি ব্যবসায়ী জসিম উদ্দিন বলেন দুপুরের খাবারের সময় চলে যাচ্ছে। কিন্ত সজীব আসতে দেড়ি করাতে আমি ফামে গিয়ে, দেখি সজীব যে ঘরে থাকে সে ঘরের দরজা ভিতর থেকে লক। অনেক ডাকাডাকির পরও দরজা খুলছে না। আমার সন্দেহ হয় আগে কোন দিন এমনটা হয় নাই। পরে রুমের টিন কেটে দেখি গলায় ফাঁস দিয়ে ঝুলে আছে। পরে সবাইকে ডেকে এনে পুলিশকে কল দেই। সজীবের বাবা বাবুল মিয়া বলেন গত ২/৩ দিন ধরে আমার ছেলে অসুস্থ বাড়িতেই ছিল, আজ সকাল ১০ টায় সুস্থ হয়ে কাজে আসে, কিন্ত হঠাৎ করে তার কি হয়েছে সেটি জানি না। তবে আমার ছেলে সুস্থ অবস্থায় বাড়ি থেকে আসে। সজীবের মা বলেন, আমার ছেলের একটু মাথায় সমস্যা ছিলো। সে প্রায়ই আমাকে বলতো আমার মাথা কি যেন করে। বাড়িতে ছিলো ভালোই কারো সাথে তেমন কোন পারিবারিক সমস্যাই হয় নাই। শুধু প্রায় সময় বলতো আমি এইসব কাজ আর করতাম না। আমার ভালো লাগে না। সম্পূর্ণ ঘটনা পরিদর্শন করেন বুড়িচং উপজেলার দেবপুর ফাড়ির ইনচার্জ ( এস, আই) কামাল হোসেন। তিনি সাংবাদিকদের বলেন, আমরা খবর পেয়ে ঘটনা স্থলে এসেছি ভিক্টিমের মরদেহ উদ্ধার করেছি এবং লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। তিনি আরও বলেন এটি আত্মহত্যাই কারণ আমরা যে অবস্থায় লাশ পেয়েছি সেটি ভিক্টিম নিজেই গলায় ফাস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে বলে আমি মনে করি। তারপর ও আমরা বিস্তারিত দেখছি যদি কোন অনিয়মের রেশ পাই তাহলে যথাযথ ব্যবস্থা নেব।

  • শেয়ার করুন
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com