করোনার টিকা বণ্টন নিয়ে অর্থনীতিবিদ ওয়াহিউদ্দিন মাহমুদের শঙ্কা প্রকাশ

করোনার টিকা বণ্টন নিয়ে অর্থনীতিবিদ ওয়াহিউদ্দিন মাহমুদের শঙ্কা প্রকাশ

দেশে এসেছে ভারত সরকারের উপহারের ২০ লাখ ডোজ করোনার টিকা। আনুষ্ঠানিকভাবে বাংলাদেশের কাছে গতকালই টিকা হস্তান্তর করেছে ভারতীয় হাই-কমিশন। তবে টিকা কারা আগে পাবে সেটা নিয়ে প্রশ্ন ঘুরপাক খাচ্ছে সাধারণ মহলে। এখনও পরিষ্কার নয় অগ্রাধিকার ভিত্তিতে কে আগে পাবেন টিকা। তাই করোনার টিকার বণ্টন ও প্রাপ্তির বিষয়ে শঙ্কা প্রকাশ করলেন বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ ওয়াহিউদ্দিন আহমেদ। নিজের ফেসবুকে তাই কিছুটা হতাশাও ঝাড়লেন এই বিশিষ্ট ব্যক্তি।
নিজের ফেসবুক ওয়ালে ওয়াহিউদ্দিন মাহমুদ লেখেন, ‘জীবনে সম্ভবতঃ প্রথম নিজের জন্য “তদবির” বা ধরাধরি করবো ভাবছি। কিন্তু কোথায় কীভাবে করতে হবে বুঝতে পারছি না। করোনার টিকা কী করে পাবো সে কথা ভাবছি।’
ওয়াহিউদ্দিন মাহমুদ লেখেন, ‘দেশে করোনার টিকা কারা আগে পাবে তার অগ্রাধিকার ঠিক করা ও বাস্তবায়ন করার মধ্য দিয়ে দেশে সুশাসনের প্রতিফলন হবে বলে কয়েক দিন আগেই ফেসবুকে একটি পোস্ট দিয়েছিলাম; সেটা আবার প্রথম আলো ও The Business Standard- এ পুনর্বার প্রকাশিত হয়। এখন মনে হচ্ছে এরকম আপ্তবাক্য উচ্চারণ করে ভুল করেছি।’
তিনি আরও লেখেন, ‘অর্থনীতির তত্ত্বে সামাজিক অগ্রাধিকার নির্ণয়ে নাগরিকরা দু’ ভাবে মতামত দিতে পারে: নিজের স্বার্থের বিবেচনায় (সেক্ষেত্রে সামাজিক সিদ্ধান্ত গ্রহণে স্বার্থের সংঘাত হবে), অথবা ন্যায়নীতি ও নাগরিক অধিকারের সম্পূর্ণ নির্মোহ দৃষ্টিভঙ্গি থেকে। আমার সম্প্রতি প্রকাশিত একটি গবেষণা নিবন্ধে (The relevance of Amartya Sen’s ideas in contemporary Bangladesh) কিছু কিছু সামাজিক গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্তের ক্ষেত্রে এই ব্যক্তি-স্বার্থচিন্তা থেকে বেরিয়ে আসার জন্য নাগরিক সচেতনতা তৈরির গুরুত্ব নিয়ে আলোচনা করেছিলাম।
বিশিষ্ট এই অর্থনীতিবিদ আরও লেখেন ‘আপাততঃ মনে হচ্ছে এসব উচ্চমার্গের আলোচনায় কাজ নেই, আমার টিকা পাওয়া জরুরী দরকার। তথাকথিত বাঙালি মধ্যবিত্ত চরিত্র সম্বন্ধে নিজেকে দিয়ে এই বোধহয় প্রথম হাতেনাতে প্রমাণ পেলাম।’

সুত্রঃ যমুনা টিভি

  • শেয়ার করুন
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com