কক্সবাজার ধর্ষণের হোতা আশিক ১৬ মামলার আসামি

কক্সবাজার ধর্ষণের হোতা আশিক ১৬ মামলার আসামি

কক্সবাজারে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ মূল হোতা আশিকুল ১৬ মামলার আসামি। তার নেতৃত্বে থাকা ৩৬ জনের চক্র, রাজনৈতিক প্রশ্রয়ে দীর্ঘদিন ধরে বেপরোয়া। যারা হোটেল মোটেল জোনের ত্রাস হিসেবে পরিচিত। ভয়ে মুখ খোলে না কেউ। এদিকে, ধর্ষণের ঘটনায় মামলা হলেও, গ্রেফতার হয়নি অভিযুক্ত কেউ-ই।
কক্সবাজারে স্বামী সন্তান নিয়ে বেড়াতে আসা নারীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষনের ঘটনায় মূল অভিযুক্ত আশিকুল ইসলামের বাড়ি বাহারছড়ায়। ইয়াবার ডিলার হিসেবে পরিচিত। কারাগার থেকে বেরিয়েছেন দু’সপ্তাহ আগে। হত্যা, ছিনতাই, নারী ও শিশু নির্যাতন, অস্ত্র মাদক সহ তার বিরুদ্ধে ১৬টি মামলা রয়েছে কক্সবাজার মডেল থানায়। অপরাধ ঢাকতে নিজের ফেসবুকে ধর্মের কথা বলে বেড়ান।
সংঘবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনায় তার সাথে থাকা দুই সহযোগী ইস্রাফিল হুদা জয় এবং মেহেদী হাসান বাবুও চিহ্নিত অপরাধী। আশিকের নেতৃত্বে রয়েছে ৩৬ জনের সংঘবদ্ধ চক্র, যারা কক্সবাজার হোটেল মোটেল জোনে ত্রাস হিসেবে পরিচিত। নিজেদের পরিচয় দেন ছাত্রলীগ নেতাকর্মী হিসেবে। সংসদ সদস্য, জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি সহ অনেকের সাথে তাদের ছবিও রয়েছে ফেসবুকে। এদের অপরাধের আখড়া পর্যটন গলফ মাঠে পেছনে এই খুপড়ি ঘর। এখানে প্রকাশ্যে তারা মাদক সেবন, ধর্ষন সহ অসামাজিক কার্যকলাপ চালালেও ভয়ে মুখ খোলে না কেউ।
ভক্সপপ :
সংঘবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনায় দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে কক্সবাজারে বেড়াতে আসা পর্যটকদের মধ্যেও ভর করেছে অজানা আতংক ও নিরাপত্তাহীনতা।
ভক্সপপ :
স্থানীয়দের অভিযোগ, আশিকুলের নেতৃত্ব সংঘবদ্ধ চক্রটি রাজনৈতিক আশ্রয় প্রশ্রয়ে বেপরোয়া দীর্ঘদিন ধরে। এর আগেও ঘটিয়েছে অনেক অপরাধ কর্মকান্ড।
সিংক : তোফায়েল আহমেদ, জ্যেষ্ট সাংবাদিক, কক্সবাজার
ভক্সপপ :
চাঞ্চল্যকর এ ঘটনায় ৪ জনের নামোল্লেখ সহ ৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন ভুক্তভোগী নারী। এর মধ্যে জিয়া গেস্ট ইন হোটেলের ম্যানেজার রিয়াজ উদ্দিন ছোটন গ্রেফতার হলেও, এখনও ধরাছোঁয়ার বাইরে মূল অভিযুক্ত ৩ জন আশিকুল, জয় ও বাবু।
আপস…
ঢাকা থেকে স্বামী ও ৮ মাসের শিশু সন্তান নিয়ে কক্সবাজার বেড়াতে যাওয়া ওই নারী বুধবার রাতে প্রথমে একটি ঝুপড়ি ঘরে এবং পরে হোটেলে সংঘবদ্ধ ধর্ষনের শিকার হন।
আল আমিন সিকদার, যমুনা নিউজ

সুত্রঃ যমুনা টিভি

  • শেয়ার করুন
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com