এপিক ফাইনালে ফরাসি দুর্গ জয় করলেন জোকোভিচ

এপিক ফাইনালে ফরাসি দুর্গ জয় করলেন জোকোভিচ

পাঁচ সেটের এক এপিক ফাইনালে স্টেফানোস সিসিপাসকে ৬-৭, (৭-৮), ২-৬, ৬-৩, ৬-২, ৬-৪ গেমে হারিয়ে ফরাসি ওপেন জয় করলেন এক নম্বর বাছাই সার্বিয়ান নোভাক জোকোভিচ। ক্যারিয়ারের ১৯ তম গ্র্যান্ডস্ল্যাম জয়ের পথে নতুন প্রজন্মের টেনিস খেলোয়াড়, ২২ বছর বয়সী সিসিপাসের কাছে বেশ কয়েকবারই বড় রকমের হুমকির সামনে পড়েছেন ‘বিগ থ্রি’এর সদস্য, ৩৪ বছর বয়সী জোকোভিচ।
সর্বকালের অন্যতম সেরা টেনিস খেলোয়াড় হবার পথে নিজের অবস্থান পোক্ত করেই চলেছেন জোকোভিচ। রড লেভার ও রয় এমারসনের পর তিনিই ইতিহাসের তৃতীয় খেলোয়াড়, যিনি চারটি গ্র্যান্ডস্ল্যামের প্রতিটিই জিতেছেন দু’বার করে। প্রসঙ্গত, বিগ থ্রিয়ের অপর দুই সদস্য রজার ফেদেরার ও রাফায়েল নাদালেরও নেই এমন রেকর্ড। আরো গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপারটি হলো, এই টাইটেল জয়ের মাধ্যমে সর্বকালের সেরা গ্র্যান্ডস্ল্যাম জয়ী খেলোয়াড় হবার পথে মাত্র এক ধাপ দূরে রইলেন জোকোভিচ। ফেদেরার ও নাদাল, দুজনই এখন যৌথভাবে দাঁড়িয়ে আছেন চূড়ায়, ২০ টি করে গ্র্যান্ডস্ল্যাম আছে তাদের নামের পাশে। তাদের পাশে দাঁড়ানোর সুযোগ এ মৌসুমেই পাচ্ছেন জোকোভিচ। উইম্বলডন ও ইউএস ওপেন তো এখনো বাকী।
সাম্প্রতিক সময়ে এই বার্তাটি যথেষ্টই স্পষ্ট যে, নতুন প্রজন্মের টেনিস খেলোয়াড়রা সেরা হবার পথে কড়া নাড়ছে বিগ থ্রির দরোজায়। সিসিপাসের এটাই ছিল প্রথম গ্র্যান্ডস্ল্যাম ফাইনাল আর জোকোভিচের ২৯ তম।
প্রথম সেটে টাইব্রেকারে হারার পর দ্বিতীয় সেটে ০-২ গেমে পিছিয়ে পড়েও দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়ান জোকোভিচ। টানা ৬টি গেম জিতে দ্বিতীয় সেট নিজের করে নেন তিনি। তৃতীয় সেটে সিসিপাসের সার্ভিস ব্রেক করেন জোকোভিচ এবং সেটটি জিতে নেন ৬-৩ গেমে। চতুর্থ সেটে সার্ভিসে মাত্র ৩ পয়েন্ট হারিয়েছেন জোকোভিচ এবং দ্রুত এই সেট জিতে নেন ৬-২ গেমে। পঞ্চম সেটে ব্রেক পয়েন্ট বাঁচানোর জন্য লড়ে যান সিসিপাস। কিন্তু তার দুটি গেম ব্রেক করে ৩-১ এ লিড নেন জোকোভিচ। অবশেষে ৪ ঘণ্টা ১১ মিনিটের এক ঐতিহাসিক প্রত্যাবর্তনের গল্প লিখে শেষ সেটটি ৬-৪ গেমে জিতেন নেন সার্বিয়ান নাম্বার ওয়ান।
ফরাসি ওপেনের ট্রফিতে চুমো খেয়ে আনন্দিত জোকোভিচ বলেন, শেষ ৪৮ ঘণ্টার পর আমি বলতে পারি এর চেয়ে খুশি হওয়া আর সম্ভব ছিল না।

সুত্রঃ যমুনা টিভি

  • শেয়ার করুন

সর্বশেষ খবর

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com