একে অপরের মুখ দেখতে চান না নাগা-সামান্থা

একে অপরের মুখ দেখতে চান না নাগা-সামান্থা

ছবি: সংগৃহীত

একে অপরের মুখ দেখতে নারাজ। পারতপক্ষে চোখাচোখিও এড়িয়ে যেতে পারলে যেন বেঁচে যান! বিচ্ছেদের সঙ্গেই হারিয়ে গেছে সামান্থা প্রভু ও নাগা চৈতন্যের সম্পর্কের মিষ্টতা। এমনকি সৌজন্য বিনিময়টুকুও করতে রাজি নন তারা। অন্তত সে রকমই গুঞ্জন দক্ষিণী ইন্ডাস্ট্রির আনাচে-কানাচে।
দুইজনের মাঝে এমন টানাপড়েনে ভারতের হায়দ্রাবাদের রামানাইডু স্টুডিও’র পরিবেশ আপাতত থমথমে। কারণ একই জায়গায় শ্যুট করছেন নাগা ও সামান্থা। দু’জনেই চাইছেন শ্যুটিং ফ্লোরে এক বারও যাতে তাদের দেখা নয়। দুই তারকাই সে বিষয়ে তাদের সহকারীদের নজর রাখতে বলেছেন।
নতুন ছবি ‘যশোদা’র জন্য শ্যুট করছেন সামান্থা। আর নাগা শ্যুট করছেন ‘বঙ্গরজু’ ছবির জন্য। অভিনেতার সঙ্গেই রয়েছেন তার বাবা নাগার্জুন। কাজের ফাঁকে আকস্মিক চোখাচোখি এড়াতে বাড়তি সতর্ক সাবেক স্বামী-স্ত্রী। ইন্ডাস্ট্রির ভেতরের খবর, কাজ শেষ হতেই আর কোনো কিছুর জন্য অপেক্ষা না করে সোজা গাড়িতে উঠে বাড়ি রওনা দিচ্ছেন দুই তারকাই।
অক্টোবর মাসের শুরুর দিকে বিবাহবিচ্ছেদের ঘোষণা করেছিলেন দক্ষিণী ছবির তারকা দম্পতি। ঠিক কী কারণে তাদের পথ আলাদা হচ্ছে, সে বিষয়ে খোলসা করে কেউই কিছু বলেননি। ইন্ডাস্ট্রির ভেতরের জল্পনা বলছে, সামান্থার দাম্পত্যের পথে অন্তরায় হয়ে দাঁড়ায় তার পেশা। নাগা ও তার পরিবার চাননি সামান্থা কোনো ছবিতে ‘সাহসী’ চরিত্রে বা ‘আইটেম’ গানে কাজ করুন। শ্বশুরবাড়ির চাপিয়ে দেওয়া এই ‘ফতোয়া’ মেনে নিতে পারেননি সামান্থা। এরপরেই নাকি সম্পর্কে ভাঙন ধরে তাদের।
সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা।

সুত্রঃ যমুনা টিভি

  • শেয়ার করুন

সর্বশেষ খবর

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com