ইতিহাস বিকৃতির অভিযোগে কর্নেল অলির বই বাজেয়াপ্ত

ইতিহাস বিকৃতির অভিযোগে কর্নেল অলির বই বাজেয়াপ্ত

ইতিহাস বিকৃতির অভিযোগে ‘রাষ্ট্র বিপ্লব সামরিক বাহিনীর সদস্যবৃন্দ এবং বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ’ নামের বইটি বাজেয়াপ্ত করার নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। বইটি লিখেছেন লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টির প্রেসিডেন্ট কর্নেল (অব.) অলি আহমেদ (বীর বিক্রম)। মঙ্গলবার (৮ ডিসেম্বর) বিচারপতি মো. খসরুজ্জামান ও বিচারপতি মো. মাহমুদ হাসান তালুকদারের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। জানা গেছে, কর্নেল অলির লিখিত বইয়ে সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানকে বাংলাদেশের প্রথম অস্থায়ী রাষ্ট্রপতি হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে। এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ হয়ে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার ইমতিয়াজ উদ্দিন আহমেদ আসিফ রিট করেন। রিট আবেদনের শুনানি শেষে আদালত কর্নেল ওলি আহমেদের লেখা বই বাজেয়াপ্ত করার নির্দেশ দেন। আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন অ্যাডভোকেট শাহ মঞ্জুরুল হক। রিট আবেদনকারী ইমতিয়াজ উদ্দিন আহমেদ আসিফ গণমাধ্যমকে বলেন, গত ১৭ আগস্ট সাংবাদিক কনক সরওয়ারের ফেসবুক ও ইউটিউব চ্যানেলে একটি সাক্ষাৎকার দেন কর্নেল অলি আহমেদ। সাক্ষাতকারে জিয়াউর রহমানকে বাংলাদেশের ‘প্রথম অস্থায়ী রাষ্ট্রপতি’ হিসেবে উল্লেখ করা হয়। অথচ সংবিধানে বঙ্গবন্ধুকে প্রথম রাষ্ট্রপতি বলা হয়েছে এবং সৈয়দ নজরুল ইসলাম উপ রাষ্ট্রপতি। স্বাধীনতার পর থেকে এ পর্যন্ত এটা নিয়ে কোনো কথা কেউ উত্থাপন করেননি। তাই এ বক্তব্য ইতিহাস বিকৃতি। এ কারণে নোটিশ দিয়েছি। ইউএইচ/

সুত্রঃ যমুনা টিভি

  • শেয়ার করুন
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com