ইংরেজি সাহিত্যে এমএ পাশ করে ‘চুরি’কে পেশা হিসেবে নিয়েছেন যুবক

ইংরেজি সাহিত্যে এমএ পাশ করে ‘চুরি’কে পেশা হিসেবে নিয়েছেন যুবক

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার একটি ভাড়া বাড়িতে থাকেন বিদ্যুৎ দফতরের কর্মী মহাশ্বেতা দে। সোমবার বাড়িতে তালা দিয়ে অফিসে গিয়েছিলেন তিনি। ফিরে দেখেন বাড়ির তালা ভাঙা, ভেতর থেকে লক্ষাধিক টাকার গয়না উধাও। এ ঘটনায় থানায় অভিযোগ করেন মহাশ্বেতা। সিসিটিভি ক্যামেরার ছবি দেখে গ্রেফতার করা হয় সৌমাল্য নামে এক যুবককে।
গ্রেফতারের পর পুলিশের চোখ কপালে! চোরের ঝুলিতে রয়েছে ইংরেজি সাহিত্যে এমএ পাশের ডিগ্রি। ওই যুবকের বিরুদ্ধে ১৭০টি চুরির অভিযোগ রয়েছে। গ্রেফতার সৌমাল্য চৌধুরী চুরি করার জন্য প্রশিক্ষণও নিয়েছেন বলে জানাত পেরেছে পুলিশ।
পুলিশ বলছে, অভিযুক্ত সৌমাল্য বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইংরেজিতে এমএ পাশ। সেই সঙ্গে তিনি খড়গপুরের দক্ষিণ পূর্ব রেলের একজন কর্মী। রেলের কাজ ভালো না লাগায় পেশা বদলের জন্য আক্ষরিক অর্থেই লেখাপড়া করে, প্রশিক্ষণ নিয়ে চুরির কাজে নেমেছিল সৌমাল্য। তদন্ত করতে গিয়ে পুলিশ জানতে পেরেছে, এলাকারই এক যুবকের কাছ থেকে চুরির প্রশিক্ষণ নিয়েছে সে। কয়েক মাস আগে হাওড়ার ফ্ল্যাট থেকে ১০ লাখ টাকার সোনার গহনা চুরির ঘটনায় গ্রেফতারও হয়েছিলেন সৌমাল্য।
তবে পুলিশ ধারণা করছে, বিরল মানসিক রোগে আক্রান্ত সৌমাল্য। আর এই রোগের কারণেই সে চুরিকে পেশা হিসাবে বেছে নিতে চেয়েছে। এদিকে আদালত তাকে পাঁচ দিনের পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছেন।
/এডব্লিউ

সুত্রঃ যমুনা টিভি

  • শেয়ার করুন
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com