আখাউড়ায় স্বামীর ছোড়া এসিডে ঝলসে গেল স্ত্রী ও শাশুড়ি

আখাউড়ায় স্বামীর ছোড়া এসিডে ঝলসে গেল স্ত্রী ও শাশুড়ি

আখাউড়া প্রতিনিধি :
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় পারিবারিক কলহের জের ধরে স্বামীর ছুড়ে দেয়া এসিডে ঝলসে গেল স্ত্রী চন্দনা রাণী পালের মাথা, হাত, মুখমণ্ডলসহ শরীরের অন্যান্য অংশ এবং শাশুড়ি পুতুল রাণী পালের বুকের অংশ।
শুক্রবার দুপুরে উপজেলার ধরখার ইউনিয়নের ভাটামাথা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। চন্দনা রাণী পাল (২৮) নামে আহত ওই গৃহবধূ আনন্দ পালের স্ত্রী। অভিযুক্ত আনন্দ পাল ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলার শ্রীঘর গ্রামের মৃত নিতাই চন্দ্র পালের ছেলে।
পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, বিয়ের পর স্বামী আনন্দ পাল স্ত্রী চন্দনাকে নিয়ে ঢাকার তাতীবাজার এলাকায় বসবাস করতেন। মাদকাসক্ত স্বামীর অত্যাচারে কয়েক মাস যাবত চন্দনা রাণী পাল আখাউড়া উপজেলা ধরখার গ্রামে তার বাবা কালিপদ পালের বাড়িতেই থাকতেন।
চন্দনার পরিবারের অভিযোগ, বিয়ের পর থেকে তাদের স্বামী – স্ত্রীর মধ্যে প্রায়ই দ্বন্দ্ব-কলহ লেগে থাকতো। শ্বশুর বাড়ি থেকে স্ত্রী চন্দনাকে নিতে আসে আনন্দ পাল। শুক্রবার দুপুরে পারিবারিক বিষয় নিয়ে তর্কবিতর্কের এক পর্যায়ে আনন্দ পাল বোতল ভর্তি এসিড তার স্ত্রীর শরীরে ছুড়ে মারে। এসময় শাশুড়ি তাকে ধরতে আসলে শাশুড়িকে এসিড নিক্ষেপ করে আনন্দ পাল।
এতে স্ত্রী চন্দনা রাণী পালের মাথা, মুখমণ্ডল, হাতসহ শরীরের অন্যান্য অংশ এবং শাশুড়ি পুতুল রাণী পালের বুকের অংশ ঝলসে যায়। এ সময় তাদের চিৎকারে স্বজনরা এগিয়ে আসার আগেই আনন্দ পাল পালিয়ে যায়। পরে স্বজনরা চন্দনা ও তার মা পুতুলকে উদ্ধার করে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
আখাউড়া থানার ওসি মিজানুর রহমান যমুনা টেলিভিশনকে জানান, খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। অভিযুক্ত আনন্দ পাল পলাতক রয়েছে, তবে তাকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

সুত্রঃ যমুনা টিভি

  • শেয়ার করুন
WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com