অন্তঃসত্ত্বার পেটে লাথি: গর্ভের সন্তানের মৃত্যু!

অন্তঃসত্ত্বার পেটে লাথি: গর্ভের সন্তানের মৃত্যু!

স্টাফ রিপোর্টার, নেত্রকোণা:
নেত্রকোণার কেন্দুয়ায় প্রতিপক্ষের লাথিতে অন্তঃসত্ত্বা এক নারীর গর্ভের ৯ মাসের সন্তানের মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। লাথিতে অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হলে ওই নারীর একটি মৃত ছেলে সন্তানের জন্ম হয়।
এরইমধ্যে ওই নবজাতকের ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে কেন্দুয়া উপজেলার সান্দিকোনা ইউনিয়নের সান্দিকোনা গ্রামে।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, পূর্ব শত্রুতার জেরে দীর্ঘদিন ধরে একই গ্রামের আবদুস সাত্তারের সঙ্গে প্রতিবেশী আবুল কালামের বিরোধ চলে আসছিল। এরই জের ধরে সাত্তার ও তার ছেলে বাবু মিয়াসহ সাত্তারের ভাই খিদিরপুর গ্রামের বাসিন্দা রফিকুল ইসলাম, হলুদ মিয়া ও লিটন মিয়াসহ কয়েক জন গত ৩০ এপ্রিল সন্ধ্যায় দেশিয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে আবুল কালামের ছেলে মাইনুলের বাড়িতে হামলা চালায়।
এতে মাইনুলের বাবা, মা ও স্ত্রী আহত হন। এসময় মাইনুলের ভাই খায়রুল ইসলামের ৯ মাসের অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী খাদিজা আক্তারের পেটে লাথি লাগে। পরে তিনি গুরুতর আহত হন। ওই সময় প্রতিপক্ষের লোকজন মাইনুলদের বাড়িঘরে হামলা-ভাঙচুর ও লুটপাটও চালায়।
পরে এ ঘটনায় থানায় একটি মামলা দায়ের হয়। বেআইনিভাবে বসতঘরে প্রবেশ করে খুনের উদ্দেশ্যে মারপিট, জখম ও নারীদের শ্লীলতাহানিসহ বিভিন্ন অভিযোগে দায়ের করা ওই মামলায় আবদুস সাত্তারকে এক নম্বর আসামি করা হয়। তবে গত ৩ মে মামলা হলেও পুলিশ এখনও কোনো আসামিকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি।
ওইদিন পেটে লাথির আঘাতে অন্তঃসত্ত্বা খাদিজা গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে দ্রুত ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। পরে গত মঙ্গলবার (৪ মে) সেখানে তিনি একটি মৃত ছেলে সন্তানের জন্ম দেন। পরে ওই হাসপাতালেই নবজাতকের ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হয়।

সুত্রঃ যমুনা টিভি

  • শেয়ার করুন

সর্বশেষ খবর

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com